চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

সর্বশেষ:

৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ১:২৯ অপরাহ্ন

অনলাইন ডেস্ক

অভিনেত্রী নওশাবার মামলা স্থগিতের আদেশ আপিলেও বহাল

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদের বিরুদ্ধে করা মামলা স্থগিত করে হাইকোর্টের আদেশ বহাল রেখেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

রবিবার (৮ ডিসেম্বর) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে নওশাবার পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ।

এর আগে গত ২০ নভেম্বর নওশাবা আহমেদের বিরুদ্ধে মামলার কার্যক্রম ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেন হাইকোর্ট।

গত বছর নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলাকালে ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে অভিনেত্রী নওশাবা আহমেদের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের মামলার কার্যক্রম ৬ মাসের জন্য স্থগিত করেন হাইকোর্ট। গত ২০ নভেম্বর বিচারপতি রেজাউল হক ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। ওই আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ৪ আগস্ট নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন চলাকালে ফেসবুক লাইভে আসেন নওশাবা। ফেসবুক লাইভে তিনি বলেন, ‘জিগাতলায় আন্দোলনকারীদের চার জনকে মেরে ফেলা হয়েছে। একজনের চোখ উপড়ে ফেলা হয়েছে। জিগাতলায় এ ধরনের ঘটনা নিয়ে তার এ ভিডিও মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়।

ওই দিনই গুজব সৃষ্টির অভিযোগে উত্তরা থেকে নওশাবা আহমেদকে আটক করেছিল র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

এর পরদিন ৫ আগস্ট র‌্যাব-১-এর কর্মকর্তা আমিরুল ইসলাম বাদী হয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় নওশাবার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। এরপর এ দিনই মামলাটিতে তাকে গ্রেপ্তারর দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়।

একই সঙ্গে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মাজহারুল হক তাকে চারদিনের রিমান্ডের আদেশ দেন। প্রথম দফার রিমান্ড শেষে ১০ আগস্ট আবারও নওশাবাকে দুইদিনের পুলিশি রিমান্ডের আদেশ দেন একই আদালত।

এরপর ২০১৮ সালের ২১ আগস্ট পাঁচ হাজার টাকা মুচলেকায় নওশাবা সিএমএম আদালতের দেয়া জামিনে মুক্তি পান।

পূর্বকোণ/পিআর

The Post Viewed By: 81 People

সম্পর্কিত পোস্ট