চট্টগ্রাম শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯

২১ নভেম্বর, ২০১৯ | ১১:১৫ পূর্বাহ্ন

অনলাইন ডেস্ক

ড্রিমলাইনার ‘সোনার তরী’ ও ‘অচিন পাখি’ আসছে ডিসেম্বরে

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের কেনা দুটো অত্যাধুনিক ড্রিমলাইনার ৭৮৭-৯ বাহারি রঙে সাজছে সিয়াটলে। ব্র্যান্ডিং, লোগো ও অন্যান্য আনুষঙ্গিক কাজও শেষ প্রায়। এখন শুধু দেশে আসার অপেক্ষা ড্রিমলাইনার দুটির। এর মধ্যেই উড়োজাহাজ দুইটির নামও ঠিক করা হয়েছে; একটির নাম ‘সোনার তরী’, অন্যটি ‘অচিন পাখি’। আগের গুলোর মতো এ দুটোরও নামকরণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, অত্যাধুনিক ড্রিমলাইনার দু‘টির একটি আসছে আগামী ২০ ডিসেম্বর, অপরটি দুদিন পর ২২ ডিসেম্বর।

এ প্রসঙ্গে বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মহিবুল হক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নতুন দুটি বোয়িং এয়ারক্রাফটের নাম পছন্দ করেছেন। এই নাম দুটি বোয়িং কোম্পানির কাছে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। রং করার সময় ড্রিমলাইনারের ওপর নাম দুটি বসানো হবে। এরপর সব প্রক্রিয়া শেষ করে দেশে আনা হবে উড়োজাহাজ দুইটি। বিমান সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশে আনার আগে উড়োজাহাজ দুইটিকে কয়েক দফা পরীক্ষা করা হবে। দেশে আনার জন্য ডিসেম্বর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে বিমানের কয়েকজন পাইলট যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলে বোয়িং কোম্পানির কারখানায় যাবেন। তাদের সঙ্গে বিমানের একটি প্রতিনিধিদলও থাকবে।

প্রসঙ্গত, ২০০৮ সালে মার্কিন উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং কোম্পানির সঙ্গে ১০টি নতুন উড়োজাহাজ কেনার চুক্তি করে বিমান। এর মধ্যে ৪টি বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর, ২টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ ও ৪টি ড্রিমলাইনার ৭৮৭-৮। এ ১০টি বোয়িংয়ের নামকরণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার মধ্যে চারটি ড্রিমলাইনারের নাম হচ্ছে আকাশবীণা, হংসবলাকা, গাঙচিল ও রাজহংস। বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর-এর নামকরণ করা হয়েছে পালকি, অরুণ আলো, আকাশ প্রদীপ ও রাঙা প্রভাত। মেঘদূত ও ময়ূরপঙ্খী নাম রাখা হয়েছে দুটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এর।

 

 

 

 

 

 

 

পূর্বকোণ/এম

The Post Viewed By: 62 People

সম্পর্কিত পোস্ট