চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯

১৫ নভেম্বর, ২০১৯ | ২:০৯ পূর্বাহ্ন

ধর্ম প্রতিমন্ত্রীকে অপসারণের দাবি প্রধানমন্ত্রী বরাবর আহলে সুন্নাতের স্মারকলিপি প্রদান

ঢাকা চকবাজার জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে জাতীয় ইমাম সমাজের সম্মেলনে হজ ও আলেমদের নিয়ে জঘন্য, নিন্দনীয়, ঘৃণ্য, অশোভনীয়, অমার্জনীয়, কুরুচিপূর্ণ শব্দ ব্যবহার করে কটুক্তি ও অবমাননার প্রতিবাদে ও তাকে অপসারণের দাবিতে গতকাল বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে আহলে সুন্নাত ওয়াল জমা’আত সমন্বয় কমিটি। আহলে সুন্নাতের প্রধান সমন্বয়ক মাওলানা এম এ মতিনের নেতৃত্বে স্মারকলিপি প্রদানকালে শীর্ষস্থানীয় ওলামা-

মাশায়েখদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আল্লামা সৈয়দ মুহাম্মদ মছিহুদ্দৌলা, অধ্যক্ষ মাওলানা স.উ.ম আবদুস সামাদ, ইকবাল মোজাদ্দেদী, শাহ খলিলুর রহমান নিজামী, আল্লামা আশরাফুজ্জামান আলকাদেরী, পীরজাদা গোলামুর রহমান আশরফ শাহ, ছাদেকুর রহমান হাশেমী, আল্লামা নূর মোহাম্মদ আলকাদেরী, শহীদুল্লাহ আল হাদী, ইছমাঈল নোমানী, ওবাইদুল মোস্তফা কদম রসূলী, ওবাইদুল হক হক্কানী, কাজী শাকের আহমদ চৌধুরী, আবুল হোসাইন, নাছির উদ্দীন মাহমুদ, আশরাফ হোসাইন প্রমুখ।

স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট শেখ মুহাম্মদ আবদুল্লাহ দায়িত্বাসীন হওয়ার পর থেকে একের পর এক ধারাবাহিকভাবে বিতর্কিত কর্মকা-ের মাধ্যমে মুসলমানদের মাঝে বিতর্ক ও উগ্র বিদ্বেষ ছড়াচ্ছেন। বর্তমানে ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর একটি বক্তব্যের ভিডিও অনলাইনে ভাইরাল হয়েছে, যেখানে দেখা যায় তিনি পবিত্র হজ, সরকার বিধি অনুযায়ী পরিচালিত আলিয়া মাদ্রাসা ও দেশে ইসলাম প্রচারের মূল ব্যক্তিত্ব আলিয়াধারার সূফিবাদি আলেম-ওলামাদের তুচ্ছ-তাচ্ছিল্যপূর্ণ শব্দের মাধ্যমে কটুক্তি ও অবমাননা করেছেন। গত ১৯ অক্টোবর জাতীয় ইমাম সমাজ বাংলাদেশ নামক উগ্র কওমীপন্থী ওলামাদের একটি সংগঠনের উদ্যোগে ঢাকা চকবাজার জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে আয়োজিত ইমাম সম্মেলন-২০১৯ এর প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি সরকারি খরচে আলেমদের হজ করানোর বিবরণ দিতে গিয়ে কওমী ওলামাদের নিজের মানুষ আখ্যা দিয়ে সরকারি বিধি অনুযায়ী ও অর্থায়নে পরিচালিত প্রধান ধর্মীয় শিক্ষাব্যবস্থা আলিয়াকে আলিয়া-মালিয়া বলে ব্যঙ্গ ও আলিয়াধারার আলেমদের ঘেউ ঘেউ করা কুত্তা (কুকুর) ও চিল্লানি আলেম নামে অভিহিত করেন। এমনকি পবিত্র হজকে কুকুরকে দেয়া মাংসের সাথে তুলনা করে জঘন্য, নিন্দনীয়, ঘৃণ্য, অশোভনীয়, অমার্জনীয়, কুরুচিপূর্ণ শব্দ ব্যবহার করে কটুক্তি ও অবমাননা করেছেন। তার এহেন বক্তব্য দেশের কোটি কোটি সূফিবাদি মুসলমান ও সরকারি বিধি অনুযায়ী পরিচালিত আলিয়াধারার লক্ষ লক্ষ আলেম-ওলামা, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মচারীদের বিব্রত করেছে। তাই আহলে সুন্নাত সমন্বয় কমিটি ৭টি অভিযোগ উল্লেখ করে এ ধর্ম প্রতিমন্ত্রীকে অপসারণ করার আবশ্যকতা তুলে ধরেন।

The Post Viewed By: 103 People

সম্পর্কিত পোস্ট