চট্টগ্রাম রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯

১৩ নভেম্বর, ২০১৯ | ৪:২৬ অপরাহ্ন

অনলাইন ডেস্ক

রোহিঙ্গাদের ভাষাণচরে স্থানান্তর স্থগিত: সাধুবাদ মানবাধিকার সংগঠনের

জাতিসংঘসহ ৩৯টি মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠন রোহিঙ্গাদের ভাষাণচরে স্থানান্তর স্থগিতের ঘোষণাকে স্বাগতম জানিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে পাঠানো এক চিঠির মাধ্যমে পদক্ষেপটিকে সাধুবাদ জানিয়েছে তারা।

অনলাইন রিফিউজি ইন্টারন্যাশনালের এক খবরে জানা যায়, ১২ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ বিষয়ক মন্ত্রী এনামুর রহমান, শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন বিষয়ক কমিশনার মাহবুব আলম তালুকদার, মিয়ানমারে নিযুক্ত জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক বিশেষ র‌্যাপোর্টিউর ইয়াংহি লী ও জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক কমিশনার ফিলিপ্পো গ্রান্ডিকে এই চিঠি পাঠিয়েছে সংগঠনগুলো। ৩ নভেম্বর এনামুর রহমান রোহিঙ্গাদের ভাষাণচরে স্থানান্তরের পরিকল্পনা স্থগিত করার ঘোষণা দেন। এছাড়া, রোহিঙ্গাদের যেকোনো ধরনের স্থানান্তর স্বেচ্ছাকৃত হবে বলে জানান। চিঠিতে সংগঠনগুলো বাংলাদেশ সরকারের এ পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছে।
প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে লিখেছে, আমরা আপনার প্রশাসনকে রোহিঙ্গাদের বর্তমান পরিস্থিতির যেকোনো সম্ভাব্য সমাধান ও পরিকল্পনা সম্পর্কে তাদের সঙ্গে অর্থবহ আলোচনা করার আহ্বান জানাই। এছাড়া রোহিঙ্গাদের মুক্ত, পূর্ববর্তী ও জ্ঞাত সম্মতি নিয়ে স্থানান্তর প্রক্রিয়া শুরুর আহ্বান জানিয়েছে তারা। ভাষাণচরে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তর স্থগিতের পাশাপাশি আগামী ১৭ থেকে ১৯ নভেম্বর দ্বীপটির কারিগরি মূল্যায়ন করতে জাতিসংঘকে অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ। এক ঘোষণায় তা নিশ্চিত করেছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব মোহাম্মদ কামাল। মানবাধিকার সংগঠনগুলো এ ঘোষণার প্রতিও সাধুবাদ জানিয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর প্রতি তারা, এই মূল্যায়নের ফলাফল সকলের জন্য উন্মুক্ত করে দিতে আহ্বান জানিয়েছে।

তারা বলেছে, ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গাকে জরুরি আশ্রয় ও মানবিক সহায়তা প্রদানের আমরা আপনার নেতৃেতর স্বীকৃতি দিচ্ছি। এই রোহিঙ্গারা ২০১৬ ও ২০১৭ সালে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের নির্মম হামলা থেকে বাঁচতে পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছে। মানবাধিকার সংগঠনগুলো এই দুই বছরের আগে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় ও সমর্থন দেয়া নিয়েও বাংলাদেশের ভূমিকার স্বীকৃতি দিয়েছে। বলেছে, রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য বিকল্প স্থায়ী সমাধান বের করার ক্ষেত্রে সরকারের প্রতিশ্রুতির প্রতি তাদের সম্মান রয়েছে। তবে ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গাকে কক্সবাজারের শিবিরগুলো থেকে ভাসাণচরে সরিয়ে নেয়ার ব্যাপারে তারা উদ্বিগ্ন। বিশেষ করে, রোহিঙ্গাদের সঙ্গে তথ্যবহুল আলোচনা ও তাদের সম্মতি ছাড়া এ প্রক্রিয়া সম্পন্নের ব্যাপারে তারা উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

চিঠিটিতে স্বাক্ষরকারী সংগঠনগুলোর মধ্যে রয়েছে; আসিয়ান পার্লামেন্টারিয়ানস ফর হিউম্যান রাইটস, এমনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল, আর্টিকল ১৯, ইউরোপিয়ান রোহিঙ্গা কাউন্সিল, ফর্টিফাই রাইটস, হিউম্যান রাইটস ওয়াচ, রিফিউজিস ইন্টারন্যাশনাল ইত্যাদি।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

পূর্বকোণ/এম

The Post Viewed By: 86 People

সম্পর্কিত পোস্ট