চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৯

১৭ অক্টোবর, ২০১৯ | ৭:১৯ অপরাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক

২০ ছাত্রের চুল কেটে দিলেন মাদ্রাসার অধ্যক্ষ

পরীক্ষার সময় ২০ ছাত্রের চুল কেটে দিয়েছেন এক অধ্যক্ষ। গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার কুশলা নেছারিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটে। এর প্রতিবাদে ছাত্ররা পরীক্ষার হল থেকে বেরিয়ে যায়। পরে অন্য শিক্ষকদের মধ্যস্থতায় তারা আবারও পরীক্ষা দেয়। বুধবার (১৬ অক্টোবর) মাদ্রাসাটির দাখিল শ্রেণির ছাত্রদের সঙ্গে এ ঘটনা ঘটে।

দাখিলের শিক্ষার্থী ইয়ামিন শিকদার, মাহামুদুল হাসান, রমজান ফকির, ইয়াসিন খান, রহমত শেখ, রিপন ও ইয়াসিন শেখ জানায়, বুধবার তাদের বাংলা পরীক্ষা চলছিল। এ সময় হঠাৎ অধ্যক্ষ মো. বাকের হোসাইন কাঁচি দিয়ে ২০ ছাত্রের চুল কেটে দেন। এ ঘটনার প্রতিবাদের তারা পরীক্ষার হল ত্যাগ করে।

একজন ছাত্র জানায়, পরীক্ষা শুরুর এক ঘণ্টা পর হঠাৎ হুজুর হলে ঢুকে ছাত্রের চুল কাটতে শুরু করেন। এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় তাদের দাখিল পরীক্ষার ফরম পূরণ করতে দেয়া হবে না বলেও হুমকি দেন তিনি।

এ বিষয়ে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ বাকের হোসাইনের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, ‘আমি পরীক্ষার আগের দিন সব ছাত্রকে চুল কেটে মাদ্রাসায় আসতে বলি। ছাত্ররা আমার কথার অবাধ্য হওয়ায় তাদের চুল কেটে দিয়েছি। আমি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকা ও নৈতিকতা শিক্ষা দেয়ার জন্যই এ কাজ করেছি। তবে কাউকে ফরম পূরণ করতে দেবো না, এ কথা বলিনি।’

এ ব্যাপারে বিধি মোতাবেক অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম মাহফুজুর রহমান।

পূর্বকোণ/টিএফ

The Post Viewed By: 145 People

সম্পর্কিত পোস্ট