চট্টগ্রাম রবিবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

৮ অক্টোবর, ২০১৯ | ৩:২১ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

আট প্রতিষ্ঠানকে দেড় লক্ষাধিক টাকা জরিমানা

মেয়াদোত্তীর্ণ সেমাই কেক খেজুর রঙ মিশ্রিত মোটর ধ্বংস

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয় অভিযান চালিয়ে ৬ প্রতিষ্ঠানকে এক লাখ ২২ হাজার টাকা জরিমানা করেছে। এসময় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯ এর বিভিন্ন ধারায় মেয়াদোত্তীর্ণ খেজুর, নকল চেরি ও কৃত্রিম রং মিশ্রিত মটর ধ্বংস করা হয়। নগরীর পতেঙ্গা, ডবলমুরিং ও কোতোয়ালী থানা এলাকায় তিনটি তদারকিমূলক অভিযান চালানো হয়। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক নাসরিন আক্তার, সহকারী পরিচালক (মেট্রো) বিকাশ চন্দ্র দাস এবং চট্টগ্রাম জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান অভিযানসমূহ পরিচালনা করেন। অভিযান পরিচালনাকালে স্টিলমিল বাজারে পেঁয়াজের মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় আলম স্টোরকে ৫০০০ টাকা এবং রং মিশ্রিত মটর বিক্রির অপরাধে সোবহান সওদাগরের দোকানকে ২০০০ টাকা জরিমানা করে প্রায় ৪ কিলোগ্রাম মটর ধ্বংস করা হয়। কোতোয়ালী থানার ফলম-ির ফারিয়া ড্রাই ফ্রুট এন্ড প্যাকেজিং স্টোরকে রং দেয়া করমচা (নকল চেরি) বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে সংরক্ষণ করায় ৪৫ ধারায় ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। একই প্রতিষ্ঠানের গোডাউনে মেয়াদোত্তীর্ণ পোকাযুক্ত খেজুর সংরক্ষণ করায় ৫১ ধারায় ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করে প্রায় ২৫০ কিলোগ্রাম পচা ও মেয়াদোত্তীর্ণ খেজুর ও ২৫ কিলোগ্রাম নকল চেরি ধ্বংস করা হয়। ডবলমুরিং থানার কর্ণফুলী সিডিএ মার্কেটের মিরসরাই

স্টোরকে মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় ৫০০০ টাকা জরিমানা করে সতর্ক করা হয় এবং সকল ব্যবসায়ীদের মূল্য তলিকা প্রদর্শন করতে ও পিঁয়াজসহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য ন্যায্য মূল্যে বিক্রয়ের অনুরোধ করা হয়। সাদা মটরকে কৃত্রিম রং মিশিয়ে সবুজ মটর হিসেবে বিক্রয় করায় সবজি বাজারের ইদ্রিস সওদাগরকে ৫০০০ টাকা এবং সফিক সওদাগরকে ৫০০০ টাকা জরিমানা করে মোট প্রায় ৭ কিলোগ্রাম মটর স্পটে ধ্বংস করা হয়। অপরদিকে, নগরীর সদরঘাট ও মাদারবাড়ি এলাকায় ভেজাল ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার বিক্রির দায়ে দুই প্রতিষ্ঠানকে ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। গতকাল সোমবার দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উমর ফারুক। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উমর ফারুক পূর্বকোণকে বলেন, সদরঘাটের আইস ফ্যাক্টরি রোডের আল আরাফাত ফুড প্রোডাক্টসকে বিএসটিআই’র লাইসেন্স নবায়ন না করে ব্যবসা পরিচালনা এবং মেয়াদোত্তীর্ণ সেমাই, কেক, ফার্মেন্টেড মিল্ক, পচা-বাসি খাবার বিক্রির অপরাধে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
অপরদিকে, মাদারবাড়ি শামু বেকারিতে খাদ্যে ক্ষতিকারক রং, রাসায়নিক দ্রব্যের ব্যবহার, স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর প্রক্রিয়ায় খাদ্য উৎপাদন এবং অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার বিক্রির দায়ে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
দুই প্রতিষ্ঠানকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন এবং বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড এন্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন আইনে ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
অভিযানে বিএসটিআই’র ফিল্ড অফিসার শহীদুল ইসলাম ও তারেক রহমানসহ সিএমপির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

The Post Viewed By: 51 People

সম্পর্কিত পোস্ট