চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ৫:৩৪ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক

ইয়াংম্যান্স ক্লাবের ক্যাসিনো সম্পর্কে কিছুই জানা নেই, দাবি মেননের

বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) ইয়ংমেন্স ক্লাবের ক্যাসিনোতে র‌্যাব অভিযান চালিয়ে নারী-পুরুষসহ ১৪২ জনকে আটক করে। তাদের প্রত্যেককে ৬ মাস থেকে এক বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

ক্যাসিনোর আড়ালে ক্লাবটিতে চলতো মাদক ব্যবসা। অভিযানে ক্লাবটির ভেতর থেকে জব্দ করা হয় আনুমানিক ২০ লাখ টাকাসহ বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য।

রাজধানীর ফকিরাপুলের ওই ক্লাবের ক্যাসিনোতে র‌্যাব অভিযান চালিয়ে জুয়া খেলার অভিযোগে ১৪২ জনকে আটক করেছে সেই ইয়ংমেন্স ক্লাবের গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান হলেন স্থানীয় এমপি ও ওয়ার্কাস পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন।

ক্লাবটিতে র‌্যাবের অভিযান পরিচালনার পর দেখা যায়, এর একটি কক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও সরকার প্রধান হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ঝোলানো। এর বিপরীত পাশের দেয়ালে রাশেদ খান মেননের ছবিঝোলানো।

এছাড়াও একটি ক্রেস্ট প্রদান বা গ্রহণ করছেন তিনি এমন একটি ছবিও ঝুলছে সেখানে। আটকদের একজন জানান, ওটা ক্লাবের চেয়ারম্যানের কক্ষ।

প্রথমে তিনি সাংবাদিকদের কাছে ক্লাবের চেয়ারম্যান থাকার বিষয়টি অস্বীকার করেন। তবে সেখানে তার ছবি থাকার কথা উল্লেখ করা হলে এ তথ্য স্বীকার করেন তিনি।

তবে রাশেদ খান মেমন সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেন, এ ক্লাবের ভেতরে জুয়ার আসর বসতো তার এমন খবর জানা ছিল না। তিনি ফুটবল ও ক্রিকেট খেলার ক্লাব হিসেবেই সেটাকে জানতেন এবং সেই কারণেই তাদের অনুরোধে চেয়ারম্যান হয়েছেন। তবে একবারের বেশি ওই ক্লাবে যাননি তিনি।

রাশেদ খান মেনন আরো বলেন, আমি জানি তাদের ফুলবল টিম আছে। ক্রিকেট খেলে। আমাকে  সেখানে ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক হাজী সাব্বিরএকদিন নিয়ে যায়। এবং বলা হয় আপনি থাকবেনক্লাবের চেয়ারম্যান। আমি বলেছিলাম ঠিক আছে। ব্যাস ওইটুকুই।  এরপরআমি আর কখনও সেখানে যাইনি।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ১৯ জুন গঠন করা হয় ফকিরেরপুল ইয়ংমেন্স ক্লাবের ৩১ সদস্যের নতুন কার্যনির্বাহী কমিটি। এতে খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে সভাপতি ও হাজী মো. সাব্বির হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়। ওই নতুন কমিটি অনুমোদনের পাশাপাশি তৎকালীন বেসামরিক বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপিকে সর্বসম্মতিক্রমে ক্লাবের গভর্নিং বডির চেয়ারম্যানও নির্বাচিত করা হয়।

পূর্বকোণ/রাশেদ

The Post Viewed By: 357 People

সম্পর্কিত পোস্ট