চট্টগ্রাম সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

২৩ ডিসেম্বর, ২০২২ | ১১:৪৬ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা অফিস

বহাল থাকছে বর্তমান কমিটিই

দেশের প্রাচীনতম ও ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ২২তম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল শনিবার। সম্মেলনের উদ্বোধনী অধিবেশন ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এবং দ্বিতীয় অধিবেশন বসবে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে। এ অধিবেশনে দলটির ঘোষণাপত্র অনুমোদন ও আগামীদিনের নেতৃত্ব নির্বাচন করা হবে। এবারে সম্মেলনের মূল প্রতিপাদ্য হচ্ছে- ‘উন্নয়ন অভিযাত্রায় দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের উন্নত, সমৃদ্ধ ও স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে।’ সম্মেলনে উদ্বোধনী তথা উন্মুক্ত অধিবেশনে কমপক্ষে ১ লাখ লোকের সমাবেশের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

 

তারপরেই দ্বিতীয় অধিবেশনে ৭ হাজার কাউন্সিলরের মতামতের ভিত্তিতে নতুন কমিটি করা হবে। ইতিপূর্বেকার সম্মেলনের চেয়ে এবারের সম্মেলনের অনেক আয়োজনই ব্যতিক্রম হবে বলে দলের তরফে জানানো হয়েছে। বলা হয়েছে, এই সম্মেলন অনুষ্ঠানের পর আগামীতে ‘আগাম সম্মেলন’ অনুষ্ঠিত হবে। কেন, সম্মেলন অনুষ্ঠানের আগেই এই আগাম সম্মেলনের ঘোষণা?

 

সেই প্রশ্নেরও জবাব দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, এক বছরের কম সময়ের ব্যবধানে হবে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন। তাই, এবারের জাতীয় সম্মেলনে কমিটি গঠনে খুববেশি হেরফের হবে না। বর্তমান কমিটিই থেকে যাবে।

 

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, নির্বাচনের আগে ঝুঁকি বাড়াতে চাইছেন না দলের নীতি নির্ধারকেরা। দলের সাধারণ সম্পাদকের এ ঘোষণার মধ্যদিয়ে যে আভাস বেরিয়ে এলো, তা হচ্ছে- নয়া কমিটিতে বর্তমান সাধারণ সম্পাদকই বলবৎ থাকছেন। অর্থাৎ, ওবায়দুল কাদেরই হচ্ছেন পরবর্তী সাধারণ সম্পাদক। এ পদে টানা তিনবার দায়িত্ব পালনের সুযোগের মধ্যদিয়ে তিনি আওয়ামী লীগে হ্যাট্রিক সাধারণ সম্পাদকের গৌরবের অধিকারী হতে পারেন।

 

তাছাড়া, দলের নীতি নির্ধারণী সূত্রের আভাস-যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদকের বর্তমান দায়িত্বপালনকারীর মধ্য থেকে অন্তত দু’জনকে প্রেসিডিয়ামে জায়গা করে দেওয়া হতে পারে। একইভাবে সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্বপালনকারীর মধ্য থেকেও অন্তত দু’জনকে যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে। দু’তিনটি সম্পাদকীয় পদে পরিবর্তনের ইঙ্গিত মিলেছে। তবে, নতুন কমিটি গঠনের আগে তা চাপাও পড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে বলে জানা গেছে। কোনও বিশেষ কারণে সাধারণ সম্পাদকের পদে নতুন মুখের অর্বিভাব হলে প্রেসিডিয়াম থেকে দু’জন ও যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক থেকে দু’জনের নাম নিয়ে কর্মী মহলে জোর প্রচারণা রয়েছে। এরা হচ্ছেন, প্রেসিডিয়ামের আবদুর রাজ্জাক ও জাহাঙ্গীর কবির নানক এবং যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদকের ডা. দীপু মনি ও ড. হাছান মাহমুদ।

 

এবারের সম্মেলনের মাধ্যমে দায়িত্বপ্রাপ্ত নতুন নেতৃত্বের সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হবে ২০২৪ সালের সাধারণ নির্বাচন। দলটির শীর্ষ পদে বা সভাপতি হিসেবে টানা ৪১ বছর ধরে দায়িত্ব পালন করে চলেছেন শেখ হাসিনা। এখন পর্যন্ত সভাপতি পদে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই বলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মনে করেন। শেখ হাসিনা এবারও সভাপতি পদে থাকছেন- এটা নিশ্চিত।

 

কার্যনির্বাহী সংসদের শেষ বৈঠক আজ : আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটির শেষ বৈঠক ডাকা হয়েছে আজ সন্ধ্যা ৬টায়। প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে এ সভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হবে দলের গঠনতন্ত্র সংশোধনীর খসড়া। সভায় সম্মেলন নিয়ে গঠিত ১১টি সম্মেলন প্রস্তুতি উপ-কমিটির নেতারা তাদের প্রতিবেদন পেশ করবেন।

 

সাধারণ সম্পাদকে আগ্রহী দলের ১০ নেতা : গতকাল জাতীয় সম্মেলনের ভেন্যু পরিদর্শন শেষে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আমার জানা মতে দলে সেক্রেটারি হওয়ার মতো ১০ জন অভিজ্ঞ নেতা আছেন। কে হবেন সেটা নেত্রীর ইচ্ছা এবং কাউন্সিলরদের মতামত। সবকিছুর প্রতিফলন ঘটবে সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে।

 

সংবাদ সম্মেলন আজ : জাতীয় সম্মেলনের আগে দলের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সর্বশেষ সংবাদ সম্মেলন ডেকেছেন আজ শুক্রবার। আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়ার স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আওয়ামী লীগের ২২তম জাতীয় কাউন্সিল উপলক্ষে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এ সংবাদ সম্মেলন ডেকেছেন।

 

পূর্বকোণ/আর

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট