চট্টগ্রাম সোমবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

২১ অক্টোবর, ২০২২ | ৮:২৮ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

শিক্ষার্থী অন্য প্রতিষ্ঠানে যেতে চাইলে আটকানো যাবে না

ভর্তি বাতিল করে কোনও শিক্ষার্থী অন্য প্রতিষ্ঠানে যেতে চাইলে কোনোভাবেই তাকে আটকানো যাবে না বলে জানিয়েছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মশিউর রহমান।

শুক্রবার (২১ অক্টোবর) রাজধানীর ধানমন্ডিতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নগর কেন্দ্র সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন উপাচার্য।

 

তিনি আরও বলেন, ‘ভর্তি বাতিল করা শিক্ষার্থীদের মূল নম্বরপত্রসহ সব কাগজপত্র দ্রুত ফেরত দিতে হবে। আর ভর্তি বাতিল করলে বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রহণ করা অংশ ফেরত দেওয়া হবে।’

প্রসঙ্গত, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় সব বিশ্ববিদ্যালয়ের আগে ভর্তি করায়। ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্য কোনও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পেলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত কলেজগুলোর মধ্যে কিছু কলেজ শিক্ষার্থীদের ভর্তি বাতিল করতে চায় না। এমনকি বাতিল করলেও সঠিক সময় নম্বরপত্রসহ কাগজপত্র ফেরত দিতে হয়রানি করে। এই পরিস্থিতির উত্তরণে দেশের কলেজগুলোকে হয়রানি না করার নির্দেশ দিয়েছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য।

 

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানায়, ১৯৯২ সালের ২১ অক্টোবর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা পায়। প্রতিষ্ঠালগ্নে অধিভুক্ত কলেজের সংখ্যা ছিল ৪৫৫টি। বর্তমানে অধিভুক্ত কলেজের সংখ্যা ২ হাজার ২৫৭। এরমধ্যে সরকারি কলেজ রয়েছে ৩০৭টি। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত বেসরকারি কলেজগুলোর মধ্যে নতুন করে সরকারি হয়েছে অনেক কলেজ।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সরকারি ও বেসরকারি কলেজগুলোয় প্রতিবছর অনার্স, ডিগ্রি ও মাস্টার্সে ভর্তি হয় সাড়ে আট লাখের বেশি শিক্ষার্থী।

 

পূর্বকোণ/সাফা/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট