চট্টগ্রাম শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

১৪ অক্টোবর, ২০২২ | ৪:০২ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

আওয়ামী লীগ বাংলাদেশ রাষ্ট্রে বিশ্বাস করে না: ফখরুল

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগ বাংলাদেশ রাষ্ট্রে বিশ্বাস করে না। যদি বিশ্বাস করতো তাহলে সংবিধানকে বিশ্বাস করতো। সংবিধানের মধ্যে এখনও যে বিধানগুলো আছে তার মধ্যে পরিষ্কার করে বলা আছে যে, একজন নাগরিকের মত প্রকাশের স্বাধীনতা আছে। গণতান্ত্রিক অধিকার আছে।’

শুক্রবার (১৪ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১১টায় ঠাকুরগাঁও শহরের কালিবাড়ির নিজ বাড়িতে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আওয়ামী লীগের নেতারা আমাদের বক্তব্যগুলো ঠিকমতো বুঝতে পারেন কি না জানি না? অনুধাবন করতে পারেন কি না জানি না।’

মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়ে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘র‌্যাবের ওপর স্যাংশন না দিয়ে, সরকারের উপর স্যাংশন দেওয়া উচিত। র‌্যাব বাংলাদেশ রাষ্ট্রের একটি প্রতিষ্ঠান। সরকার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত, মালিক হুকুমদাতা। র‌্যাব কোনো কাজই করতে পারে না হোম মিনিস্টার বা প্রাইম মিনিস্টারের নির্দেশ ছাড়া। এই দেশে যত মানবাধিকার লঙ্ঘন হয়েছে, এই দেশে যত গুম হয়েছে, খুন হয়েছে এক্সট্রা জুডিসিয়াল কিলিং হয়েছে এবং মানুষের অধিকার হরণ করা হয়েছে, বিভিন্ন আইন করে জনগণের অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে; তার জন্য সম্পূর্ণভাবে, এককভাবে দায়ী বর্তমান অনির্বাচিত আওয়ামী লীগ সরকার।’

বিএনপি প্রকাশ্যে রাজনীতি করে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ‘সংবিধানে বিধান আছে নির্বাচনের মধ্য দিয়ে পার্লামেন্টে যাওয়া। কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে বাংলাদেশে আর সেই পরিবেশ নেই। বাংলাদেশে এখন চলছে একনায়কতন্ত্র। আগে শুধু বিএনপিই বলতো এখন অন্যান্য দলগুলোও বলছে। আওয়ামী লীগের যে সহযোগী দল বা শরিক দল জাতীয় পার্টি তারাও একই কথা বলছে। বাংলাদেশে গণতন্ত্রের নামে একনায়কতন্ত্র চলছে। আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত হয়ে গেছে, বাংলাদেশ একনায়কতন্ত্রের দেশ হয়ে গেছে।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- জেলা বিএনপির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা তৈমুর রহমান, বিএনপি নেতা ওবায়দুল্লাহ মাসুদ, মাসুদুর রহমান প্রমুখ।

পূর্বকোণ/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট