চট্টগ্রাম রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

১১ অক্টোবর, ২০২২ | ১১:০২ পূর্বাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

শ্বশুরের মৃত্যু, ৭ ঘণ্টা পর মারা গেলেন পুত্রবধূ!

শ্বশুরের মৃত্যুর ৭ ঘণ্টার মাথায় তার পুত্রবধূরও মৃত্যু হয়েছে। ওই পরিবারে মাতম চলছে।

রোববার (০৯ অক্টোবর) ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার মাতুভূঞা ইউনিয়নের উত্তর আলীপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

এদিকে বাবার মৃত্যুর খবর শুনে ওমানপ্রবাসী আনোয়ার হোসেন দেশের পথে রওনা হন। কিন্তু পথেই স্ত্রীর মৃত্যুর খবরও শুনতে পান। এতে তিনি বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার উত্তর আলীপুর গ্রামের মো. বেলায়েত হোসেন (৬৫) ডায়াবেটিস ও হৃদ্‌রোগের কারণে ফেনী ডায়াবেটিস হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। শনিবার বিকেলে পাঁচটার দিকে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। লাশ বাড়িতে নেওয়ার পর রাত সাড়ে ১২টার দিকে গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

বেলায়েত হোসেনের মৃত্যুর খবর শোনার পরপরই তার বড় ছেলে ওমান প্রবাসী আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী কোহিনূর আক্তার (২৬) বিলাপ করতে করতে অসুস্থ হয়ে পড়েন। শ্বশুরের লাশ বাড়ি থেকে কবরস্থানে নেওয়ার পথেই পুত্রবধূ কোহিনূরের বুকে ব্যথা ওঠে। বাড়ির লোকজন তাৎক্ষণিকভাবে তাকে দাগনভূঞা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। রোববার দুপুরে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়।

স্বজনরা জানান, কোহিনূর আক্তারও দীর্ঘদিন ধরে হৃদ্‌রোগের সমস্যায় ভুগছিলেন। তার দুই মেয়ে, দুজনই এখনো শিশু। বড় মেয়ে ফাতিহা নুরের বয়স পাঁচ বছর, আরেক মেয়ে ফাইজা নুরের বয়স মাত্র তিন বছর। কোহিনুরের বাবার বাড়ি ফেনী সদর উপজেলার মধুয়াই গ্রামে।

স্থানীয় মাতুভূঞা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘ঘটনা শুনে তিনি ওই বাড়িতে গিয়েছিলেন। একই সঙ্গে পরিবারের দুই সদস্যের মৃত্যুর ঘটনাটি খুবই হৃদয়বিদারক।’

 

 

পূর্বকোণ/এসি

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট