চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

৩ অক্টোবর, ২০২২ | ১২:০৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

বৃহত্তর আন্দোলনে যাবে বিএনপি-কল্যাণ পার্টি, দেড় ঘন্টার বৈঠকে ঐক্যমত

সরকার পতনের জন্য যে কোনো কর্মসূচি ও বৃহত্তর আন্দোলনে যেতে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি একমত হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, প্রথম দফার সংলাপে জাতীয় ঐক্য করার ব্যাপারে নীতিগত ঐক্যমত ছিল, এখন আমাদের দ্বিতীয় দফায় সুনির্দিষ্ট দাবি আদায়ের বিষয়গুলো আলোচনা হয়েছে। বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলে সরকার পতনের জন্য যুগপৎ আন্দোলনের বিষয়ে একমত পোষণ করেছে কল্যাণ পার্টি।

রবিবার (২ অক্টোবর) বেলা দুইটায় গুলশানে কল্যাণ পার্টির নেতাদের সঙ্গে দ্বিতীয় দফা মতবিনিময় করে বিএনপি নেতারা। দেড় ঘন্টার সংলাপ শেষে দুই দলের নেতরা যৌথ সংবাদ সম্মেলন করেন।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, নির্দলীয় সরকার বা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন নিশ্চিত করা, নতুন নির্বাচন কমিশনের অধীনে নিবার্চন, লাখ লাখ নেতাকর্মীদের মুক্তিসহ চেয়ারপার্সনের মুক্তির বিষয়ে যুগপৎ আন্দোলন বেগবান করা এসব ইস্যুতে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির সঙ্গে ঐক্যমতে পৌঁছেছি আমরা।

আন্দোলনের রূপরেখা আসবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, অবশ্যই আপনারা জানতে পারবেন।

বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বলেন, যুগপৎ আন্দোলনের দিন তারিখ প্রকাশ না করতে অনুরোধ করা হয়েছে। চমক আছে। চমকের জন্য অপেক্ষা করেন। এবার বিজয়ের কোন বিকল্প নেই। বিজয় আমাদের হবেই। রাজপথে আমাদের দেখতে পাবেন।

তিনি বলেন, আমরা চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তি, ধর্মীয় নেতাদের নির্যাতন, ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন প্রভৃতি বিষয়ে কথা বলেছি।

সংলাপে বিএনপির পক্ষে নেতৃত্ব দেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

অন্যদিকে কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহম্মদ ইবরাহিমের নেতৃত্বে অংশ নেন পার্টির মহাসচিব আবদুল আউয়াল মামুন, অতিরিক্ত মহাসচিব নুরুল কবির পিন্টু, যুগ্ম-মহাসচিব সোহেল মোল্লা, আব্দুল্লাহ আল হাসান সাকিব, ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি মাহবুবুর রহমান শামিম, উত্তরের সেক্রেটারি জামাল হোসেন, মহানগর দক্ষিণের সভাপতি আবু হানিফ ও উত্তরের সেক্রেটারি আবু ইউসুফ।

 

পূর্বকোণ/মামুন/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট