চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২ | ১১:১৯ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

সচেতনতায় কমছে প্রজনন

দেশে সন্তান জন্মদানের হার কমেছে। এখন গড়ে একজন মা দুটি সন্তানের জন্ম দিচ্ছেন। স্বাধীনতার সময় গড়ে একজন মা সাতটি সন্তান জন্ম দিতেন। জন্ম নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতির ব্যবহার বাড়ায় প্রজনন হার কমেছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। তবে দীর্ঘমেয়াদি এবং স্থায়ী পদ্ধতির ব্যবহার না বাড়ায় প্রজনন হার নিয়ন্ত্রণের এই ধারা টিকিয়ে রাখতে বাংলাদেশকে অনেক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখী হতে হবে বলেও সতর্ক করেছেন তারা।

প্রতিবেদন অনুযায়ী দেশে এখন টিএফআর (টোটাল ফার্টিলিটি রেট) ১.৯৫৪ শতাংশ। ২০২১ সালে এই হার ১.৯৭৯ এবং ২০২০ সালে এই হার ২.০০৩ ছিল। অর্থাৎ প্রতিবছরেই দেশে প্রজনন হার কমছে। তবে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এতুটুকুতেই তুষ্ট না হয়ে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমকে আরও ঢেলে সাজাতে হবে। জনগণকে জন্মনিয়ন্ত্রণের বিভিন্ন পদ্ধতি, বিশেষ করে স্থায়ী পদ্ধতি গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করতে কাউন্সিলর নিয়োগ দিতে হবে।

এছাড়া এ কার্যক্রমের গুণগতমানের দিকে নজর বাড়াতে হবে। এতে মানুষের, বিশেষ করে নারীদের যাতে কোনোভাবেই স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়তে না হয়, তা নিশ্চিত করতে হবে। সরকারের পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের দক্ষ জনবল বাড়ানোর পাশাপাশি নজরদারি জোরদার করার সুপারিশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা। পাশাপাশি বাল্যবিবাহ, মেয়েদের স্কুল থেকে ঝরে পড়া, অনাকাঙ্ক্ষিত সন্তান ধারণ, অনিরাপদ গর্ভপাত, কিশোরী মাতৃত্ব কমাতে উদ্যোগ নিতে বলেছেন তারা।

এ পরিস্থিতিতে আজ ২৬ সেপ্টেম্বর বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মতো বাংলাদেশেও পালিত হচ্ছে বিশ্ব জন্মনিরোধ দিবস। ২০০৭ সাল থেকে দিবসটি পালিত হচ্ছে। বিশ্ব জন্মনিরোধ দিবস পালনে নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়। চট্টগ্রামেও বিভাগী স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় দিবসটি পালনে নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

পূর্বকোণ/আর

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট