চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২ | ৫:৫০ পূর্বাহ্ণ

পূর্বকোণ ডেস্ক

মানবাধিকার কমিশন থেকে বিদায় নিলেন ড. কামাল

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সার্বক্ষণিক সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন শেষ করলেন সাবেক সিনিয়র সচিব ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ। ৩ বছর সাফল্যের সঙ্গে দায়িত্ব পালন শেষে গত বৃহস্পতিবার কমিশন থেকে বিদায় নেন তিনি। ২০১৯ এর ২২ সেপ্টেম্বর সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারকের পদমর্যাদা দিয়ে তাকে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সার্বক্ষণিক সদস্য হিসেবে নিয়োগ দিয়েছিল সরকার। এর আগে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ এবং পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মতো গুরুত্বপূর্ণ দুটি মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ। তিনি পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের আর্থ-সামাজিক অবকাঠামো বিভাগেরও সদস্য ছিলেন। এছাড়া বেশ কিছু দিন অধ্যাপনা করেছেন ঢাকার বেসরকারি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব বিজনেস এন্ড ইকোনোমিকসে। বাংলাদেশ থেকে প্রথমবার দক্ষিণ কোরিয়ার গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড বোর্ডের সদস্য হিসেবে আন্তর্জাতিকভাবে সম্মানজনক পদ লাভ করে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলা এবং জিসিএফ সাপোর্ট পাওয়ার ক্ষেত্রে ৪৫টি স্বল্পোন্নত দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন ড. কামাল। বাংলাদেশ যৌথ সীমান্ত ওয়ার্কিং গ্রুপের চেয়ারম্যান হিসেবে ভারতের সাথে সীমান্ত চুক্তি বিষয়ক প্রটোকল (মুজিব-ইন্দিরা চুক্তি) প্রস্তুতিতেও সহায়ক ভূমিকা পালন করেন তিনি। দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিসেবে বাংলাদেশ-ভারতের সীমান্ত সমস্যার নবযুগ সৃষ্টিকারী শান্তিপূর্ণ সমাধানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ। দেশের অভ্যন্তরে আইন শৃঙ্খলা বজায় রাখার মাধ্যমে মানবাধিকার সুরক্ষা, আন্তর্জাতিক চুক্তির খসড়া প্রস্তুতি, মানবপাচার, মাদক ও অর্থ পাচার প্রতিরোধ এবং সন্ত্রাসীদের অর্থায়ন বিষয়ে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে সফল আলোচনার ক্ষেত্রে তিনি উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখেন। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং জাতীয় প্রশিক্ষণ কেন্দ্রগুলোর অনুরোধে তিনি এসব প্রতিষ্ঠানে রিসোর্স পার্সন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়, ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়, ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ, বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, সিভিল সার্ভিস প্রশাসন একাডেমি, বাংলাদেশ একাডেমি ফর রুরাল ডেভেলপমেন্ট এবং ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজ এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য। ড. কামাল উদ্দিন আহমেদের জন্ম ১৯৫৯ সালের ১০ জুন ফেনী শহরের মাস্টারপাড়ায় এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে। তিনি ফৌজদার হাট ক্যাডেট কলেজ থেকে মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইনে স্নাতক এবং ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট থেকে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। যুক্তরাজ্য থেকে বিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর এবং নিউজিল্যান্ড থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন।
তার সহধর্মিণী পারভীন আক্তারও একজন সরকারি আমলা ছিলেন। তিনি গ্রেড-১ পদে পদোন্নতি পেয়ে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন শেষে অবসরে যান। পারভীন আক্তার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগ থেকে এমএসএস ডিগ্রি এবং অস্ট্রেলিয়ান ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে উন্নয়ন প্রশাসনে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। কামাল-পারভীন দম্পতির একমাত্র কন্যা নিউজিল্যান্ডের ম্যাসি বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতা নিয়ে পড়াশোনা করছেন।

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট