চট্টগ্রাম রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

সর্বশেষ:

২৬ আগস্ট, ২০২২ | ১১:০৭ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

নুডলস খাওয়ার সময় শিশুর গলায় আটকে গেল সেফটিপিন

রাজশাহীতে নুডলস খেতে গিয়ে মো. জিদনি নামে এক শিশুর গলায় সেফটিপিন ঢুকে গেছে। সেফটিপিন আটকে ছটপট করায় তাকে নেয়া হয় হাসপাতালে। শুক্রবার (২৬ আগস্ট) সকালে নগরীর ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এক্স-রে পরীক্ষায় বিষয়টি ধরা পড়েছে। এক্স-রে করার পর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শিশুর বাবা শফিকুল ইসলাম (৩২)।

জানা যায়, নাটোরের লালপুর উপজেলার বড় বাড্ডা এলাকার বাসিন্দা শফিকুল ইসলাম। গত বুধবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে তার মা জুলেখা বেগম নুডলস খাওয়ানোর সময় ভুলবশত শিশুটির গলায় আটকে যায় সেফটিপিন। সঙ্গে সঙ্গে শিশুটি বমি করতে শুরু করে। এরপর অসুস্থ হয়ে পড়লে বাঘা সেবা ক্লিনিকে ভর্তি করানো হয়।

রাতেই তাকে সেবা ক্লিনিক থেকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। বর্তমানে ওই শিশুটিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। শিশুটি এখন সুস্থ রয়েছে।

শিশু জিদনির ভাই জানান, নুডুলস খাওয়ানোর সময় গলায় কী যেন আটকে যায়। সে বমি করতে শুরু করে। পরে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে পাশের একটি ক্লিনিকে নেওয়া হয়। পরবর্তীতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় এবং সেখানে ভর্তি করানো হয়। এখন স্যালাইন চলছে। তবে এখানে সেফটিপিন বের করার মেশিন না থাকায় চিকিৎসকরা তাকে ঢাকায় নেওয়ার পরামর্শ দেন।

রাজশাহীর ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালের মেডিকেল টেকনোলজিস্ট শফিকুল ইসলাম বলেন, শুক্রবার সকালে এক্স-রে করানো হয়। এ সময় রিপোর্টে সেফটিপিন দেখা যায়। শিশুর স্বজনের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারি নুডলসের মধ্যে ছিল। নুডলস খাওয়ানোর সময় সেফটিপিনটি গলায় আটকে যায়।

 

পূর্বকোণ/রাজীব/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট