চট্টগ্রাম শুক্রবার, ১২ আগস্ট, ২০২২

২৭ জুলাই, ২০২২ | ৮:২৮ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

শতভাগ মানুষ পান বিশুদ্ধ পানি, সর্বোচ্চ যোগান টিউবওয়েলে

দেশে মোট জনসংখ্যার শতভাগই বিশুদ্ধ খাবার পানি পাচ্ছেন বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস)। পানি উৎসের মধ্যে সর্বোচ্চ ৮৫ শতাংশ পানির যোগান আসে গভীর/অগভীর টিউবওয়েল থেকে।

বুধবার (২৭ জুলাই) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) প্রথম ডিজিটাল ‘জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২২’-এর প্রতিবেদন প্রকাশনা অনুষ্ঠানে বিবিএস এ পরিসংখ্যান তুলে ধরে।

প্রতিবেদনে খাবার পানির প্রধান উৎস জরিপে বলা হয়, সব বিভাগেই শতভাগ মানুষ বিশুদ্ধ খাবার পানি পাচ্ছে। এর মধ্যে গভীর/অগভীর টিউবওয়েলের পানি পান করেন ৮৫ শতাংশ, সাপ্লাই পানি পান করেন ১১ দশমিক ৭৪ শতাংশ, বোতলজাত পানি পান করেন শূন্য দশমিক ৫৯ শতাংশ, কূপের পানি পান করেন শূন্য দশমিক ৩৫ শতাংশ, পুকুর/নদী/খাল/লেকের পানি পান করেন শূন্য দশমিক ৮৯ শতাংশ, ঝরনা/ছড়ার পানি পান করেন শূন্য দশমিক ১২ শতাংশ, বৃষ্টির পানি পান করেন শূন্য দশমিক ৪২ শতাংশ এবং অন্যান্য উপায়ে শূন্য দশমিক ২৪ শতাংশ মানুষ পানি পান করেন।

প্রতিবেদন অনুযায়ী বর্তমানে দেশের মোট জনসংখ্যা ১৬ কোটি ৫১ লাখ ৫৮ হাজার ৬১৬ জন। যেখানে ৮ কোটি ১৭ লাখ পুরুষ ও ৮ কোটি ৩৩ লাখ নারী আর ১২ হাজার ৬২৯ জন তৃতীয় লিঙ্গের। এর আগে ২০১১ সালের জনশুমারিতে জনসংখ্যা ছিল ১৪ কোটি ৪০ লাখ।

সারাদেশে গত ১৫ জুন একযোগে শুরু হয় জনশুমারি ও গৃহগণনা কার্যক্রম। গত ২১ জুন জনশুমারি শেষ হওয়ার কথা থাকলেও উত্তর-পূর্বাঞ্চলের জেলায় বন্যা শুরু হওয়ায় এসব জেলায় শুমারি কার্যক্রম ২৮ জুন পর্যন্ত চলে।

প্রতিবেদন প্রকাশনা অনুষ্ঠানে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম প্রমুখ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব ড. শাহনাজ আরেফিন। এছাড়া প্রকল্প পরিচালকা মো. দিলদার হোসেন প্রাথমিক প্রতিবেদন বিষয়ে উপস্থাপন করেন।

 

পূর্বকোণ/এএস/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট