চট্টগ্রাম শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

সর্বশেষ:

২৮ জুলাই, ২০১৯ | ২:৪০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক , ঢাকা অফিস

বিএসএমএমইউতে দাঁতের চিকিৎসা নিলেন খালেদা

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মাউথওয়াশ ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসক। গতকাল তাকে হাসপাতালটির দন্তরোগ বিভাগে নেওয়া হলে এ পরামর্শ দেন ওরাল অ্যান্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. কাজী বিল্লুর রহমান। পরে, বিএসএমএমইউতে আয়োজিত এক ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে হাসপাতালটির পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. এ কে মাহবুবুল হক এ তথ্য জানান।
জানা যায়, বিএসএমএমইউ এর কেবিন ব্লকে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার দাঁতে কিছু সমস্যা দেখা দিলে গতকাল তাকে হাসপাতালটির দন্তরোগ বিভাগে নেওয়া হয়। এজন্য দুপুর দেড়টার দিকে কড়া পাহারায় তাকে কেবিন ব্লক থেকে বের করা হয়। সেখান থেকে একটি মাইক্রোবাসে করে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালটির আরেকটি ব্লকে অবস্থিত দন্ত বিভাগে। পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে দুপুর সোয়া ২টার দিকে কড়া নিরাপত্তায় তাকে আবারও কেবিন ব্লকে ফিরিয়ে নেওয়া হয়। পুরোটা সময়ই হুইল চেয়ারে বসে ছিলেন বিএনপির এই প্রধান।
এর আগে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার আরও ভয়াবহ অবনতি হয়েছে। তিনি হুইল চেয়ার ছাড়া চলাচল করতে ও নিজে বিছানা থেকে উঠতে পারছেন না। তিনি দাবি করেন, তাকে সব সময় সাহায্য করতে দুজন লোকের দরকার। সবচেয়ে ভয়াবহ বিষয় হচ্ছে সম্প্রতি তার জিহ্বায় আলসার হয়েছে। কিছুই খেতে পারছেন না।
দন্তরোগ বিভাগে বিএসএমএমইউর ওরাল অ্যান্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. কাজী বিল্লুর রহমান খালেদা জিয়ার চিকিৎসার তত্ত্বাবধান করেন। ব্রিফিংয়ে এই চিকিৎসক জানান, খালেদা জিয়ার উপরের ৭ ও ৮ নম্বর দাঁত ভাঙা ছিল এবং সেগুলোর মাথা ধারালো ছিল। ধারালো অংশগুলো সমান করে দেওয়া হয়েছে। চিকিৎসকদের ভাষায় একে বলে গ্রাইন্ডিং। এরপর দাতের ওই অংশ মসৃণ করার জন্য পলিশিং করা হয়েছে। এই চিকিৎসক জানান, খালেদা দাঁতের এখন কোনো ব্যথা নেই। দুই এক জায়গায় ফিলিং লাগতে পারে। সেটাও সময়মতো করে দেওয়া হবে। তাছাড়া তাকে মাউথওয়াশ ব্যবহার করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।
এসময় বিএসএমএমইউ এর পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. এ কে মাহবুবুল হক বলেন, আপনারা জানেন যে তার (খালেদা জিয়ার) কিছু ক্রনিক অসুখ। সেগুলো তো আর রাতারাতি ভালো হবে না। তবে তিনি ইমপ্রুভিং, কমফোর্টেবল আছেন। যে রকম এখানে এসেছিলেন তার চেয়ে বেটার আছেন।
পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে অসুস্থ হওয়ায় চিকিৎসার জন্য গত ১ এপ্রিল তাকে বিএসএমএমইউয়ে আনা হয়। এরপর থেকে তিনি এখানে রয়েছেন। দুর্নীতির মামলায় দ- নিয়ে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া দেড় বছরের বেশি সময় ধরে কারাগারে।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 272 People

সম্পর্কিত পোস্ট