চট্টগ্রাম বুধবার, ০৩ মার্চ, ২০২১

সর্বশেষ:

২৩ জুলাই, ২০১৯ | ৬:৩০ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

মানববন্ধনে গিয়েও কেঁদে মাকে খুঁজেছে তুবা

চার বছর বয়সী তাসমিন তুবা ছলছলে চোখে পথ চেয়ে আছে মায়ের অপেক্ষায়, মা তার জন্যে পোশাক নিয়ে আসবে, ভাত খাওয়াবে। সে এখনো বুঝে উঠতে পারেনি যে তার মা আর কখনই ফিরে আসবে না।

তাকে কোলে তুলে চুমু খাবে না, বুকে জড়িয়ে ঘুমুবে না।

ছোট্ট তুবা জানে না, তার মা তাকে ছেড়ে চিরতরে চলে গেছে না ফেরার দেশে।

আজ মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) মা তাসিলমা বেগম রেনু হত্যার বিচারের দাবিতে লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে রাস্তায় মানববন্ধনে অনেক মানুষের ভিড়ে কেঁদে কেঁদে সে মাকে খুঁজেছে।

ঢাকার বাড্ডায় গণপিটুনিতে নিহত রেনুর হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে আজ মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) বেলা ১১টার দিকে লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করছে এলাকাবাসী। সর্বস্তরের মানুষ এ কর্মসূচিতে অংশ নেয়। এসময় মানববন্ধনেও ‘মা কই, মা কই’ বলে কেঁদেছে তুবা। অবুঝ শিশুকে কে বোঝাবে- সে যে মাকে ফিরে পেতে এখনো কেঁদে চলেছে; তার হত্যার বিচারের দাবিতেই সে রাস্তায় দাঁড়িয়েছে।

উল্লেখ্য, শনিবার সকালে বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আসেন তাসলিমা বেগম। তার দুই সন্তানের ভর্তির বিষয়ে খোঁজ নিতে গেলে স্কুলের গেটে কয়েকজন নারী তাসলিমার নাম-পরিচয় জানতে চান। পরে লোকজন তাসলিমাকে স্কুলের প্রধান শিক্ষকের কক্ষে নেন। কিছুক্ষণের মধ্যে বাইরে কয়েকশ লোক একত্র হয়ে তাসলিমাকে প্রধান শিক্ষকের কক্ষ থেকে বের করে নিয়ে যায়। স্কুলের ফাঁকা জায়গায় নিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় মারধর করায় তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় বাদি হয়ে বাড্ডা থানায় অজ্ঞাতনামা চারশ থেকে পাঁচশ মানুষকে আসামি করে মামলা করেন। তাসলিমার বোনের ছেলে সৈয়দ নাসিরউদ্দিন।

 

পূর্বকোণ/ময়মী

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 461 People

সম্পর্কিত পোস্ট