চট্টগ্রাম সোমবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২২

২৮ নভেম্বর, ২০২১ | ১২:০২ অপরাহ্ণ

নৌকায় ‘ওপেন ভোট’ নেন, প্রিসাইডিং অফিসারকে হুমকি

এভাবেই প্রিজাইডিং অফিসার আবুল খায়েরকে নৌকায় ওপেন ভোট নেওয়ার জন্য চাপ দেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী মুজিবুর রহমান সওদাগর।

ভোটের শুরুতেই নবীরগর উপজেলার লাউর ফতেহপুর ইউনিয়নের একটি কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকে ওপেন ভোট নেওয়ার জন্য প্রিসাইডিং অফিসারকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. মুজিবুর রহমান সওদাগরের বিরুদ্ধে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর, বাঞ্ছারামপুর ও সরাইল উপজেলার ৩২টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে। রোববার (২৮ নভেম্বর) সকাল ৮টা থেকে ৩১৮টি কেন্দ্রে শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

সকাল সোয়া ৮টার দিকে লাউর ফতেহপুর ইউনিয়নের হাজীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে আসেন আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মুজিবুর রহমান সওদাগর। কেন্দ্রটিতে সকাল থেকেই ভোটারদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে।

কেন্দ্রে এসেই চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকে ওপেন ভোট নেওয়ার জন্য কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার আবুল খায়েরকে চাপ দেন মুজিবুর রহমান। কিন্তু তিনি রাজি না হওয়ায় তাকে হুমকি দেন মুজিবুর রহমান। এ নিয়ে কেন্দ্রে হট্টগোল হলে পুলিশ এসে আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে কেন্দ্র থেকে বের করে দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

হাজীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার আবুল খায়ের বলেন, আওয়ামী লীগের প্রার্থী এসে ওপেন ভোট নেওয়ার জন্য আমাকে চাপ দেন। আমি রাজি না হয়ে গোপনকক্ষে ভোট দেওয়ার কথা বললে তিনি বলেন, আমি প্রিসাইডিংয়ের বাপ। পরে আমি কেন্দ্রে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের জানিয়েছি।

তবে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী মুজিবুর রহমান সওদাগর বলেন, আমি প্রিসাইডিং অফিসারকে ওপেন ভোট নেওয়ার জন্য চাপ দেইনি। অভিযোগটি মিথ্যা।

লাউর ফতেহপুর ইউনিয়নের পুলিশের স্ট্রাইকিং ফোর্সের ইনচার্জ ও পুলিশ পরিদর্শক কাজী মাসুদ ইবনে আনোয়ার বলেন, প্রিসাইডিং অফিসার ফোন পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে কেন্দ্রে আসি। কেন্দ্রে এসে অনাকাঙ্ক্ষিত কোনো ব্যক্তিকে পাইনি। শান্তিপূর্ণভাবেই ভোট চলছে।

 

পূর্বকোণ/এসি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 309 People

সম্পর্কিত পোস্ট