চট্টগ্রাম বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৬ জুলাই, ২০১৯ | ৫:৪৫ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক

পল্লী নিবাসই যেন হয় শেষ ঠিকানা : বিদিশা

সাবেক রাষ্ট্রপতি, জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে রংপুরে দাফনের বিষয়ে সেখানকার নেতাকর্মীদের দাবির প্রতি একাত্বতা প্রকাশ করেছেন তার সাবেক স্ত্রী বিদিশা এরশাদ।

তিনি বলেছেন, রংপুরের পল্লী নিবাসের মাটিই যেন হয় এরশাদের শেষ ঠিকানা।

মঙ্গলবার বেলা ১১ টায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিদিশা এ কথা লিখে স্ট্যাটাস দেন।

বিদিশার স্ট্যাটাসটি তুলে ধরা হলো-

‘তাই যেন হয়, আমিও তাই চাই। লক্ষ লক্ষ নেতাকর্মীদের মতো রংপুরের মাটি যেন হয় এরশাদের শেষ ঠিকানা। সহধর্মিনী থাকতে বহুবার পল্লী নিবাসে বারান্দায় ছেলে এরিককে কোলে বসিয়ে উনি আমাকে বলেছিলেন, ‘তুমি আমার ছোট, দেখ আমার মৃত্যুও যেন আমাকে ছেলের কাছে থেকে দূরে না রাখে। আমার কবর আমি এই পল্লী নিবাসে চাই। রংপুরের মানুষের ভালোবাসার প্রতিদান আমি দিতে পারিনি আজও। রংপুরের মানুষ আমার কবরে এসে দোয়া করবে, এটাই আমার চাওয়া।’

বিদিশা জানান, এরশাদ একাধিকবার তার সমাধি পল্লী নিবাসের লিচুতলায় করার কথা তাকে বলে গেছেন। তিনি লিখেন, ‘প্রতিবার এই কথাটি বলতেন তিনি এরিকের দিকে তাকিয়ে, ভেজা চোখে। আজ সদ্য বাবা হারা ছেলে আমার মায়ের আশ্রয়েও নেই। এরিকের চোখের পানিতে পাথরও গলে যায়। কিন্তু গলে না রাজনীতিবিদদের মন। আমার ছেলে এরিককে আটকিয়ে রাজনীতির কোন ফায়দা লুটবেন এনারা?’

তিনি লিখেছেন, ‘দোয়া করি রংপুরের পল্লীনিবাস যেন শেষ ঠিকানা হয়।’

এর আগে গতকাল সোমবার প্রয়াত এরশাদ এবং ছেলে এরিক এরশাদকে নিয়ে এক আবেগঘন স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন বিদিশা। সেখানে দেশে ফিরে সাবেক স্বামীর মরদেহ শেষবার দেখতে না পাওয়া এবং ছেলে এরিক এরশাদকে নিয়ে রাজনীতির অভিযোগ তোলেন তিনি। প্রসঙ্গত রবিবার সকাল পৌনে ৮টায় রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন মৃত্যুবরণ করেন সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তার বয়স হয়েছিল ৮৯ বছর। তিনি রক্তে সংক্রমণসহ লিভার জটিলতায় ভুগছিলেন। রবিবার বাদ জোহর ঢাকা সেনানিবাস কেন্দ্রীয় মসজিদে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর সোমবার বেলা ১১টায় জাতীয় সংসদে দ্বিতীয় ও বাদ আসর বায়তুল মোকাররম মসজিদে তৃতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। রংপুরে চতুর্থ জানাজা শেষে আজ তাকে দাফন করা হবে।

পূর্বকোণ/ময়মী

The Post Viewed By: 145 People

সম্পর্কিত পোস্ট