চট্টগ্রাম সোমবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২১

সর্বশেষ:

২৪ ডিসেম্বর, ২০২০ | ৯:৩৬ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনার টিকা আনার প্রক্রিয়া শেষ, আসবে জানুয়ারির শেষে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, অক্সফোর্ড-এস্ট্রেজেনেকার তিন কোটি ডোজ ভ্যাকসিন আনা হচ্ছে। ভারত থেকে করোনাভাইরাসের টিকা আনার পুরো প্রক্রিয়া শেষ। বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) বিএমএ মিলনায়তনে স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ-স্বাচিপের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে  যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতের তুলনায় বাংলাদেশ ‘অনেক ভালো’ আছে দাবি করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনা সংক্রমণের শুরুর দিকে রোগটির চিকিৎসা পদ্ধতি জানা ছিলো না। এ কারণে শুরুতে কিছুটা ঘাটতি ছিল। কিন্তু এখন পরিস্থিতি ভিন্ন। পুরো ইউরোপ লকডাউনে গেলেও প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ এই মহামারি নিয়ন্ত্রণে রেখেছে।

তিনি বলেন, আমাদের চিকিৎসকরা অব্যাহতভাবে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। ৮০ শতাংশ রোগী বাসায় থেকে টেলিমেডিসিন সেবা নিয়ে ভালো হয়েছেন। স্বল্প সময়ে ২ হাজার ডাক্তার ও ১৫০০ নার্স নিয়োগ দেয়া হয়েছে। মহামারিতে সরকারি প্রতিষ্ঠানের যেসব চিকিৎসক মারা গেছেন ও যারা আক্রান্ত হয়েছেন, তাদের ক্ষতিপূরণ দ্রুত দেয়ার ব্যবস্থা হচ্ছে। এছাড়া বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকদের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সাথে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, সরকার দেশের মোট জনসংখ্যার ৮০ শতাংশ মানুষকে নতুন করোনাভাইরাসের টিকা দেয়ার খসড়া পরিকল্পনা তৈরি করেছে। সেই লক্ষ্যে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে প্রথম দফায় অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি ও এস্ট্রাজেনকা কোম্পানির টিকা আনা হচ্ছে। ইতিমধ্যে বেক্সিমকোর মাধ্যমে এই টিকার তিন কোটি ডোজ কিনতে প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে চুক্তি করেছে সরকার। এছাড়াও গ্লোবাল এলায়েন্স ফর ভ্যাকসিনস এন্ড ইমিউনাইজেশনস-গ্যাভি বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার ২০ শতাংশের জন্য ৬ কোটি ৮০ লাখ ডোজ টিকা দেয়ার আশ্বাস দিয়েছে। মহামারি মোকাবেলায় যারা সম্মুখসারিতে কাজ করছেন শুরুতে তাদের বিনামূল্যে এই টিকা দেয়া হবে।

 

 

 

পূর্বকোণ/আরপি 

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 152 People

মন্তব্য দিন :

সম্পর্কিত পোস্ট