চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২১

৬ ডিসেম্বর, ২০২০ | ১০:২০ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

অবশেষে হচ্ছে এলপিজির মূল্য নির্ধারণে বিইআরসির গণশুনানি

তরল পেট্রোলিয়াম গ্যাসের ( এলপিজি) দাম নির্ধারণ করার উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। আগামীকাল ৭ ডিসেম্বরের মধ্যে দাম নির্ধারণের জন্য এলপিজি ব্যবসায়ীদের কাছে প্রস্তাব জমা দিতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে ১৪ থেকে ১৮ জানুয়ারি গণশুনানির দিন নির্ধারণ করা হয়েছে।

বিইআরসি’র একজন সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আজই আমরা আদলেতর আদেশ হাতে পেয়েছি। তিনি জানান, এই আদেশ পাওয়ার পরপরই এলপিজি ব্যবসায়ীদের কাছে প্রস্তাব চাওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে ১৪ জানুয়ারি থেকে গণশুনানির দিন নির্ধারণ করা হয়েছে।

বিইআরসি সূত্র বলছে, এজন্য একটি শিডিউল ঘোষণা করা হয়েছে। শিডিউলের মধ্যে রয়েছে ৭ ডিসেম্বরের মধ্যে স্বার্থ সংশ্লিষ্ট ও লাইসেন্সিদের দাম সম্পর্কিত দলিলাদি জমা, ১৩ ডিসেম্বর কোম্পানিগুলোর প্রস্তাব পেলে মূল্যায়ণ কমিটি গঠন এবং গণশুনানির তারিখ নির্ধারণ করা হবে। ১৩ এবং ১৪ ডিসেম্বর স্বার্থ সংশ্লিষ্টদের গণশুনানির বিষয়ে নোটিশ দেওয়া হবে। এরপর ১৫ এবং ১৬ শুনানির তারিখ জানিয়ে বিজ্ঞাপন দিয়ে পত্রিকায় প্রকাশ করবে বিইআরসি। এছাড়া ১৪ডিসেম্বর থেকে ৪ জানুয়ারি গণশুনানির বিষয়ে সবার মতামত প্রদান, ৪ জানুয়ারি লিখিত মতামত প্রাপ্তি, এবং শুনানিতে অংশগ্রহণের জন্য নাম তালিকাভুক্ত করা হবে।

এরপর ১৪, ১৭ এবং ১৮ জানুয়ারি এলপিজির দাম নির্ধারণে গণশুনানি করবে কমিশন। শুনানির পর ২৪ জানুয়ারি লাইসেন্সি ও স্বার্থ সংশ্লিষ্টদের সাথে শুনানি পরবর্তীতে লিখিত মতামত প্রদান করা যাবে।

সুত্র জানায়, দাম নির্ধারণে প্রাথমিক ধাপ হিসেবে কোনও কোম্পানিকে যেহেতু দামের প্রস্তাব দিতে হয় সেহেতু বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন ( বিপিসি) এর অধীনে যেসব কোম্পানি এলপিজি বিক্রি করে তাদের দাম নির্ধারণের প্রস্তাব দিতে বলা হয়েছে। তারা প্রস্তাব দিলে প্রথমে মূল্যায়ণ কমিটি করবে কমিশন। এরপর গণশুনানির আয়োজন করা হবে।

বিইআরসির চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল বলেন, আমরা এতদিন এই দাম নির্ধারণের চেষ্টা করে আসছিলাম। কিন্তু নানা কারণে তা করা যাচ্ছিল না। এখন আমাদেরকে আদালত আদেশ দিয়েছে। আমরা আদালতের নির্দেশে কাজ শুরু করেছি। ইতোমধ্যে কোম্পানিগুলোকে দামের বিষয়ে অবহিত করার জন্য চিঠি দিয়েছি। তিনি জানান, দাম নির্ধারণের প্রস্তাব পেলে আমরা মুল্যায়ণ কমিটি করবো। তাদের সুপারিশ অনুযায়ী পরবর্তীতে গণশুনানি করা হবে।

এদিকে কমিশনের একজন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, আমরা একটা সিডিউলও করেছি। সে অনুযায়ী কাজ করছি আমরা। তিনি জানান, আমাদেরও কিছু সীমাবদ্ধতা আছে। আমরা চাইলে সব করতে পারি না। অনেক ক্ষেত্রে মন্ত্রণালয়ের মতামতেরর প্রয়োজন হয়। এখন আদালত যে রুল জারি করেছে তার জবাব দিতেই হবে। এবং সে অনুযায়ী কাজ শুরু করতে আমরা আসলে এখন বাধ্য।

সরকারি এলপিজি বিপণন কোম্পানি এলপিজি লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফজলুর রহমান জানান, আজ রবিবার তারা বিইআরসির চিঠি পেয়েছেন। বিইআরসি কাল সোমবারের মধ্যেই প্রস্তাব জমা দিতে বলছে। তারা কালকের মধ্যেই প্রস্তাবটি জমা দিতে পারবেন বলে আশা করছেন।

পূর্বকোণ/ আরআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 184 People

সম্পর্কিত পোস্ট