চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২২ জানুয়ারি, ২০২১

সর্বশেষ:

৩ ডিসেম্বর, ২০২০ | ৩:০৮ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

মধুদার ভাস্কর্যের কান ভেঙে দিল দৃর্বৃত্তরা

দেশে চলমান ভাস্কর্যবিরোধী আন্দোলনের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যানটিনের সামনে থাকা মধুদার (মধুসূদন দে স্মৃতি ভাস্কর্য) ভাস্কর্যের একটি কান ভাঙার ঘটনা ঘটেছে।  

বুধবার (২ ডিসেম্বর) রাতে বিষয়টি গোচরে এলে তা মেরামত করা হয়েছে। তবে কবে, কখন, কারা ওই ভাস্কর্যের কান ভেঙেছিল তা জানা যায়নি।  

বিজ্ঞাপন

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল টিম ও মধুর ক্যানটিনের কর্মচারী সূত্রে জানা যায়, মধুদার ভাস্কর্যের অংশবিশেষ ভাঙার বিষয়টি নজরে আসার পর প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানীকে জানানো হয়। পরে প্রক্টরিয়াল টিমের কয়েকজন সদস্য এসে ভাস্কর্যে নতুন কান স্থাপন করেন। তবে প্রক্টরের ভাষ্য, মধুর ক্যানটিনের কর্মচারীরাই নতুন কান প্রতিস্থাপন করেছেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী গণমাধ্যমকে বলেছেন, মধুর ক্যানটিনের কর্মচারীরাই ভাস্কর্যটির কান প্রতিস্থাপন করেছেন। তবে ভাস্কর্যে  উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে আঘাত করা হয়েছে কি না তা পরিষ্কার নয়।  

মধুসূদন দে, যিনি ‘মধুদা’ নামেই বহুল পরিচিত, ছিলেন মধুর ক্যানটিনের প্রতিষ্ঠাতা। মধুদা সামাজিক ও রাজনৈতিক আন্দোলনে সোচ্চার ছিলেন। পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চের কালরাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হল থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে তাকে হত্যা করে। মধুদার স্মৃতির স্মরণে তার নামেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউটের সামনে অবস্থিত রেস্তোরাঁটির নামকরণ করা হয় ‘মধুর ক্যানটিন’।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 157 People

মন্তব্য দিন :

সম্পর্কিত পোস্ট