চট্টগ্রাম শনিবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০২১

সর্বশেষ:

২২ মে, ২০১৯ | ৮:৩১ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

জনগণের সরকার ছাড়া দেশকে ধ্বংসের হাত থেকে বাঁচানো যাবে না: রিজভী

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, অচিরেই জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠিত না হলে এদেশকে ধ্বংসের হাত থেকে বাঁচানো যাবে না।

নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বুধবার (২২ মে) সকালে সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

রিজভী বলেন, মিডনাইট সরকারের জুলুমে দেশের মানুষ চরম অশান্তিতে আছে। কৃষক-শ্রমিক, চাকরিজীবী, ব্যবসায়ী, দিনমজুর, প্রবাসী, কায়িক শ্রমজীবী কেউ ভালো নেই, চারদিকে ত্রাহি দশা। জালিমশাহীর বর্বর আঁচড়ে জর্জরিত জনগণ। পবিত্র রমজানেও ভাল নেই দেশের মানুষ, চারিদিকে হাহাকার চলছে। ১৭ কোটি মানুষের শুধু আর্তনাদ, কোথাও শান্তি নাই।
তিনি আরো বলেন, কৃষকরা মাঠের ধান ঘরে উঠাচ্ছেন না। মাঠেই ধান জ্বালিয়ে দিচ্ছেন, পাকা ধানে মই দিচ্ছেন। কি মর্মান্তিক এই দৃশ্য! বাংলাদেশের সবচেয়ে সৃজনশীল মানুষ কৃষকরা বিরতিহীনভাবে ধান-আলু-পেঁয়াজ-রসুন-টমেটো-উৎপাদন করছেন। কিন্তু ন্যায্যমূল্য পাচ্ছেন না। ন্যায্যমূল্য দেয়ার কোনো পরিকল্পনাই এই অবৈধ সরকারের নীতিতে নেই। কৃষক তার পাকা ধানের ক্ষেতে আগুন দেন, আর খাদ্যমন্ত্রী বলছেন, ‘এটা সরকারের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র’। হীরক রাজ্যের মতো কৃষকরাও মন্ত্রীর চোখে ষড়যন্ত্রকারী। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, বর্তমান সরকারের সাথে সাধারণ জনগণের কোন সম্পৃক্ততা নেই। গত নির্বাচনে আপনারা দেখেছেন কীভাবে ভোট হয়েছে। প্রার্থী ছিল আওয়ামী লীগ, ভোটার ছিল পুলিশ-বিজিবি। ভোট হয়েছে নিশুতি রাতে। ভোটের সাথে জনগণের কোনো সম্পৃক্ততা ছিল না। এখন যারা জনপ্রতিনিধি, তারা পুলিশ কর্তৃক সিলেক্টেড প্রতিনিধি, তারা জনগণের ম্যান্ডেটে নন। সুতরাং এই সরকার অন্ধকার রাতে পুলিশ-র‌্যাব কর্তৃক সিলেক্টেড সরকার। তাই দেশজুড়ে দুর্নীতি আজ প্রাতিষ্ঠানিক রূপ ধারণ করেছে। আওয়ামী স্বেচ্ছাচারী শাসনে উদ্ভূত মহাদুর্নীতির প্রবল চাপে গণতন্ত্র ও বহুত্ববাদকে মাটিতে মিশিয়ে দেয়া হয়েছে।

রিজভী আরো বলেন, ‘গণতন্ত্রের মা’ দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার অসুস্থতা আশঙ্কাজনক পর্যায়ে উপনীত হলেও সরকার তাকে মুক্তি দিচ্ছে না। অসত্য মামলাগুলোতে দেশনেত্রীর কোনো সংশ্লিষ্টতা না থাকার পরেও আইনি প্রক্রিয়ার ওপর নির্বাহী বিভাগের প্রভাব খাটিয়ে বেআইনিভাবে জামিন আটকিয়ে রাখছে। এই অবৈধ প্রধানমন্ত্রী ব্যক্তিহিংসা, দাম্ভিকতা ও জিদের জন্য বেগম জিয়াকে জোর করে কারারুদ্ধ করে রেখেছেন। নিজের সর্বময় কর্তৃত্ব নিরাপদ করার জন্যই ক্ষমতাতপস্বী শেখ হাসিনা কারাবন্দী করে রেখেছেন বেগম জিয়াকে।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 345 People

সম্পর্কিত পোস্ট