চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

১২ অক্টোবর, ২০১৯ | ১:৩৬ পূর্বাহ্ণ

জেবুন নাহার শারমিন

কবি নজরুল একাডেমি চট্টগ্রামের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা সম্পন্ন

দিনটি ছিলো ২৭ সেপ্টেম্বর। শরৎ এসেছে শহরে। ব্যস্ত জীবনের জানালায় দেখা মিলছে তার এক টুকরো সাদা মেঘের উপস্থিতি। পরক্ষণেই আবার কালো মেঘের ভেলা। এই রোদ এই বৃষ্টি। খেয়ালী আবহাওয়াকে উপেক্ষা করে কবি নজরুল একাডেমি, চট্টগ্রামের (নাসিরাবাদ শাখা) নাসিরাবাদ পাবলিক স্কুল প্রাঙ্গণে দুপুর ২টা থেকেই একে একে জড়ো হতে থাকে ছোট ছোট ছেলেমেয়েরা তাদের মা-বাবা সহ। সবার এখানে আসার একটিই কারণ, কবি নজরুল একাডেমি চট্টগ্রাম আয়োজিত ত্রৈমাসিক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান ২০১৯ এ অংশ্রগ্রহণের জন্য। মাত্র কদিনের নোটিশে এত প্রতিযোগী! জানতে চাইলে একজন অভিভাবক বলেন, “আমার বাচ্চা ছবি আঁকতে খুব পছন্দ করে এবং আমার বাচ্চা কবি নজরুল একাডেমি চট্টগ্রাম এর চিত্রাঙ্কনের শিক্ষার্থী এবং ভাবছি এই পাঁচ মাসের ক্লাসে তার উন্নতি কতটুকু হয়েছে। ওকে নিয়ে চলে এলাম। আশা করছি ও ভালো কিছুই করতে পারবে। “স্কুল প্রাঙ্গণে কার্পেট বিছিয়েই সবার বসার ব্যবস্থা করা হয়। সবাইকে সুশৃঙ্খলভাবে বসানো, খাতা বুঝিয়ে দেয়া, কিছু না বুঝলে সাথে সাথেই তাদের সমাধান দেয়ার জন্য সেখানে উপস্থিত ছিলেন একাডেমির আবৃত্তি, গান, নৃত্য, সুন্দর হাতের লেখা, গিটার প্রশিক্ষকবৃন্দ ও কজন স্বেচ্ছাসেবক।

একজন অভিভাক নিজ থেকেই বলে উঠলেন, “খুব চুলচেরা বিশ্লেষণের মাধ্যমেই বাছাই প্রক্রিয়া চলছে। আমরা খুবই খুশি আপনাদের এমন স্বচ্ছ বিচার প্রক্রিয়া দেখে।” উল্লেখ্য, প্রতিযোগিতায় ছিলো দুটি বিভাগ। ক বিভাগ ছিলো তৃতীয় শ্রেণি থেকে তার উপরের শিক্ষার্থী এবং খ বিভাগে ছিলো প্লে থেকে দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী। দুই বিভাগে প্রতিযোগী ছিলো ২০০ জন।
অসাধারণ সব চিত্রাঙ্কন থেকে বাছাইকৃত মোট ছয় জনের নাম সংগ্রহ করে শুরু হয় পুরস্কার বিতরণী পর্ব। এ পর্বে পুরো অনুষ্ঠান জুড়ে সঞ্চালনায় ছিলেন কবি নজরুল একাডেমি চট্টগ্রাম এর আবৃত্তি শাখার প্রধান প্রশিক্ষক জেবুন নাহার শারমিন।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, একাডেমির প্রধান উপদেষ্টা সাংবাদিক ইসমাঈল পারভেজ ফারুকী, বিশেষ অতিথি ছিলেন রবি আজিয়াটা লিমিটেড এর ব্যবস্থাপক ও একাডেমির উপদেষ্টা, এ. এইচ. এম. গোলাম কিবরিয়া, বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন এশিয়ান টেলিভিশনের সিনিয়র রিপোর্টার ও একাডেমির উপদেষ্টা কাজী মাহফুজুল হক। আরও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সহকারী অধ্যক্ষ মো. আনিসুল ইসলাম, ইক্রা স্কুল এন্ড কলেজ। প্রথমেই তাঁদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। বক্তব্য রাখেন আবৃত্তিকার শামসুল আরেফিন আরও বক্তব্য রাখেন কবি নজরুল একাডেমির সম্মানিত শুভাকাক্সিক্ষ শাম্স বিন শামীম। বিশেস অতিথিদের বক্তব্যের পর বৃন্দ আবৃত্তি পরিবেশন করেন কবি নজরুল একাডেমি চট্টগ্রাম এর আবৃত্তি বিভাগের শিক্ষার্থী, বিবি ফাতেমা, সাইদ রাফসান, ফাইরোজ জাহান, তাসনুফা তাহসান আবৃত্তি। শিক্ষার্থীরা পরিবেশন করে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘নির্ঝরের স্বপ্নভঙ্গ’। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, “এত সুন্দর, সুশৃঙ্খল আয়োজন এবং এত প্রতিযোগীর সমাগম দেখে আমি আনন্দিত। আমাদের সংস্কৃতির সাথে ছোট ছোট বাচ্চাদের পরিচয় করিয়ে দিচ্ছে কবি নজরুল একাডেমি চট্টগ্রাম।” তারপর দুটো বিভাগ থেকে যারা প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় হয়েছে তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিরা। যারাই অংশগ্রহণ করেছে সবার জন্যেও ছিলো শুভেচ্ছা উপহার। উপহার প্রদান শেষে কবি নজরুল একাডেমির পরিচালক নূর নবীর বক্তব্যের মাধ্যমেই আয়োজনের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 247 People

সম্পর্কিত পোস্ট