চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ, ২০২১

সর্বশেষ:

২৭ জুলাই, ২০১৯ | ১:১৩ পূর্বাহ্ণ

আশরাফুন নুর

টিআইসিতে তির্যকের ইডিপাস মঞ্চস্থ

প্রবাদ আছে, বিধির লিখন যায় না খ-ন। বিধি অর্থাৎ সৃষ্টিকর্তা যার ললাটে বা ভাগ্যে যা লিখে রেখেছেন তা খ-ন করা যায় না-শত চেষ্টা বা সাধনার মাধ্যমেও। এ বিশ্ববিধানে মানুষের হাত নেই। এখানে মানুষ নিয়তির হাতের ক্রীড়নক। নিয়তি যেভাবে মানুষকে নিয়ে খেলবে, মানুষ সেভাবেই খেলবে। মানুষ হলো পুতুল। তাই মানুষের জীবন নিয়তি দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। এখানে কর্মের জন্য মানুষ দায়ী নয়। এখানেই মানবজীবনের ট্র্যাজেডি নিহিত। মানুষ তার কৃতকর্মের জন্য নিজেই দায়ী। কিন্তু গ্রিক ট্র্যাজেডিতে মানুষ আদৌ তার কৃতকর্মের জন্য দায়ভার বহন করে না। এই পৌরাণিক কাহিনীর বিশ্বাসকে ধারণ করে বিশ্ববিখ্যাত নাট্যকার সফোক্লিস ‘ইডিপাস’ নাটক নির্মাণ করেন।
সফোক্লিস তাঁর নাটকে ক্ষমতা ও কামনা, ধর্ম ও পরকালভাবনা, পৌরণিক ঐতিহ্য, পরিবার ও গোত্রস্বার্থ, কর্তব্যবোধ, দেশপ্রেম, যুদ্ধ- মানব সভ্যতার এসব মৌলিক বিষয়গুলোকে পর্যবেক্ষণ করেছেন গভীর দৃষ্টিশক্তি দিয়ে। তাঁর নাট্যসৃষ্টি হেলেনিক গ্রিক সমাজের ধারাভাষ্য হিসেবে ছিল শৈল্পিক, কিন্তু নির্মোহ। আড়াই হাজার বছর পর আজকের সভ্যতায়ও তা সমান প্রাসঙ্গিক।
গ্রিক ট্র্যাজেডিতে মানুষের অপরিসীম হতাশা আর অসহায়ত্ব চিত্রিত হয়েছে ‘ইডিপাসে’। অব্যক্ত চিত্তদহনের ছবি পৃথিবীর অন্য ভাষার সাহিত্যে আগে দেখা যায় নি। গ্রীক ট্র্যাজেডির অন্যতম শ্রেষ্ঠ কাহিনী ‘ইডিপাস’ যেখানে জীবন একই সঙ্গে নিষ্ঠুর এবং মহিমান্বিত। ভাগ্যাহত ইডিপাস, বিপর্যস্ত জীবনের মধ্যে তার বিধাতাকে প্রত্যক্ষ করেছেন। সত্যান্বেষণের পাশাপাশি অনিশ্চয়তার বিপুল তরঙ্গে ভেসে চলেন ইডিপাস তৃণখ-ের মতো।
এভাবেই কাহিনী আবর্তিত হয়েছে তির্যক নাট্যদলের প্রাচীন গ্রিক ট্র্যাজেডি সফোক্লিসের ‘ইডিপাস’ নাটকটিতে। গত ৫ জুলাই সন্ধ্যা সাতটায় থিয়েটার ইনস্টিটিউট, চট্টগ্রাম মিলনায়তনে এ নাটকের প্রদর্শনী হয়। এটি তির্যক নাট্যদলের ৩৮তম প্রযোজনা। আহমেদ ইকবাল হায়দার নির্দেশিত ইডিপাস নাটকের প্রথম মঞ্চায়ন হয় ১৯৯৫ সালের ২৫ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম মুসলিম হলে। এ পর্যন্ত তির্যক নাট্যদলের ৩৮তম প্রযোজনায় ইডিপাস নাটকের ১৪৭ টি প্রদর্শনী সম্পন্ন করেছে।
উক্ত নাটকের অভিনয়ে ও নেপথ্যে রয়েছেন সুজিত চক্রবর্ত্তী, মাহবুবুল ইসলাম রাজিব, রিপন বড়–য়া, কিরীটি সাহা, অমিত চক্রবর্ত্তী, মফিজুর রহমান, প্রবাল বড়–য়া, নুসরাত জাহান, ফারজানা ইসলাম টিনা, সালমা চৌধুরী, তুলি, ফাতেমা কানিজ নাফিসা, শায়লা শারমিন, সাইদুর রহমান চৌধুরী ও আহমেদ ইকবাল হায়দার।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 327 People

সম্পর্কিত পোস্ট