চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০২ মার্চ, ২০২১

সর্বশেষ:

১৩ অক্টোবর, ২০১৯ | ২:৫২ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

ছাত্র রাজনীতি বন্ধ নয় সুষ্ঠু ধারা ফিরে আসুক

আবদুল্লাহ আল নোমান

বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেকমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, ‘বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকান্ড কোনভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। এটি ছাত্র রাজনীতির বিচ্ছিন্ন কোনো ঘটনা ভাবলে ভুল হবে। রাজনৈতিক শক্তির সহায়তায় পরিকল্পিত একটি নৃশংস ঘটনা। ১৯৫২, ১৯৬২, ১৯৬৯ ও ১৯৭১ সালে দেশে যতগুলো গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস রচিত হয়েছিল সেখানে ছাত্ররা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন। ১৯৫২ সালে ভাষা আন্দোলন এবং ১৯৬২ সালে আইয়ুব বিরোধী শিক্ষা কমিশনের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন ছাত্ররাই। মূলত ছাত্রদের বলিষ্ট আন্দোলন এবং সহযোগিতায় এসব সম্ভব হয়েছিল। তখন ছাত্ররা নির্লোভ ছিলেন। নিঃস্বার্থ ও দেশপ্রেমিক ছিলেন। কিন্তু ছাত্রদের সেই গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস এখন আর নেই। ছাত্র রাজনীতিতে চরম অবক্ষয় বিরাজ করছে। তাই ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করলে এ সমস্যার সমাধান হবে না। রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় যারা অধিষ্ঠিত এবং তারা যে পেটুয়াবাহিনী সৃষ্টি করেছে, তা থেকে বিরত থাকতে হবে। নৈতিক বলে বলিয়ান হয়ে ছাত্র রাজনীতির ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে হবে। ছাত্ররা তাদের ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে এখন যেভাবে গণআন্দোলন করছে সেই আন্দোলন যত বেশি শক্তিশালী হবে তত বেশি অপরাজনীতি বন্ধ হবে।

বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদকে যারা হত্যা করেছে, তারা ইতিপূর্বে আরো ঘটনা ঘটিয়েছে। তাদের শক্তি শারীরিক নয়, তাদের শক্তি ক্ষমতার। এই ক্ষমতার শক্তির কারণে এভাবে আবরারকে নৃশংসভাবে হত্যা করতে পেরেছে। এ সময় তাদের বাধা দিতে কেউ সাহসও করতে পারেনি। ছাত্রছাত্রীরা ছিল তাদের কাছে অসহায়। ছাত্রদের ক্ষমতার উৎস ভেঙ্গে দিতে না পারলে ছাত্র রাজনীতি বন্ধ কিংবা খোলা কোনটা কাজে আসবে না। ছাত্ররা এককভাবে দায়ী নয়, ছাত্রদের যারা স¤্রাটের মতো গড়ে তুলেছে তারাই এজন্য দায়ী। ক্ষমতার উৎস খোঁজে শুধু শাস্তি দিলে হবে না, ছাত্র রাজনীতির যে অবক্ষয় হয়েছে গবেষণার মাধ্যমে কিভাবে রোধ করা যায় তা বের করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে। গণজাগরণ যদি ছাত্ররা একবার গড়ে তুলতে পারলে তার মাধ্যমে সত্যিকার নেতৃত্ব গড়ে উঠবে। ছাত্র রাজনীতি বন্ধের পরিবর্তে সুষ্ঠু ধারা ফিরে আসবে। এ ধারা গড়ে তুলতে আমাদের প্রচেষ্ঠা চালাতে হবে। অছাত্র, মাস্তান, চাঁদাবাজ, খুনি এবং ক্ষমতাসীন দলের সহযোগিতায় যারা শক্তিশালী, এ শক্তি দমন করলে দেশের গণতান্ত্রিক ধারা ফিরে আসবে। তাতে অপশক্তি মাথা নত করতে বাধ্য হবে।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 193 People

সম্পর্কিত পোস্ট