চট্টগ্রাম রবিবার, ১৭ জানুয়ারি, ২০২১

১৭ মে, ২০১৯ | ৫:৫৬ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

অস্ট্রিয়ার প্রাথমিক বিদ্যালয়ে হিজাব নিষিদ্ধ

সম্প্রতি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মেয়েদের হিজাব বা মাথায় যেকোন ধরনের কাপড় পরা নিষিদ্ধ করে একটি আইন পাস করেছে অস্ট্রিয়া সরকার।

তবে এ আইনকে বৈষম্যমূলক বিবেচনা করে দেশটির সাংবিধানিক আদালতে সেটি চ্যালেঞ্জ করা হতে পারে।

সংসদে দেশটির ক্ষমতাসীন মধ্য ডানপন্থি দল পিপল’স পার্টি ও উগ্র ডানপন্থি ফ্রিডম পার্টির সদস্যরা বিলটির পক্ষে ভোট দেন। তবে বিরোধী দলের প্রায় সব সদস্য বিলটির বিপক্ষে ভোট দিয়েছিলেন।

আইনটির লক্ষ্য শুধু মুসলমানরা নয়, এমন ধারণা দিতে সেটিতে লেখা হয়েছে, ‘যেকোন আদর্শগত বা ধর্মীয় প্রভাবান্বিত পোশাক, যা মাথা ঢেকে রাখার লক্ষ্যে ব্যবহার করা হয়, তা নিষিদ্ধ।’

বুধবার (১৫ মে) রাতে সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, শিখদের পাগড়ি বা ইহুদিদের টুপি এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বে না। কারণ এ আইনে এমন মাথার কাপড়ের কথা বলা হয়েছে, যেটি সব চুল বা মাথার অধিকাংশ অংশ ঢেকে রাখে। তবে চিকিৎসাসংক্রান্ত কারণে কিংবা বৃষ্টি ও তুষারপাত থেকে বাঁচতে মাথা ঢেকে রাখা যাবে।

দেশটির ক্ষমতাসীন দলের আইনপ্রণেতারা ইতিমধ্যে স্বীকার করেছেন যে, মূলত মুসলমান মেয়েদের জন্যই নতুন আইনটি প্রণয়ন করা হয়েছে।

 মেয়েদেরকে নতি স্বীকার করা থেকে মুক্ত করতে এ আইন প্রণয়ন করা হয়েছে বলে জানান পিপল’স পার্টির আইনপ্রণেতা রুডল্ফ টাশনার।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 329 People

সম্পর্কিত পোস্ট