চট্টগ্রাম বুধবার, ২২ জানুয়ারি, ২০২০

১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ৩:২৮ পূর্বাহ্ন

নাগরিকত্ব বিল উত্তাল আসাম-ত্রিপুরায় সেনা মোতায়েন, বন্ধ ইন্টারনেট

ধাপে ধাপে জম্মু-কাশ্মীর থেকে সেনা কমিয়ে তা বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় মোতায়ন করা হচ্ছে বলে ইতিমধ্যে জানা গিয়েছে।
ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে জ্বলছে উত্তর-পূর্ব ভারত। ক্রমশ ছড়াচ্ছে উত্তেজনা। এই অবস্থায় যুদ্ধকালীন পরিস্থিতি সেখানে সেনা মোতায়েন করা হচ্ছে।

ইতিমধ্যে ত্রিপুরায় কয়েক হাজার সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। আসামেও মোতায়েন করা হচ্ছে সেনাবাহিনী। ধাপে ধাপে জম্মু-কাশ্মীর থেকে সেনা কমিয়ে তা আসামে মোতায়ন করা হচ্ছে বলে ইতিমধ্যে জানা গিয়েছে।
এই অবস্থায় এবার অসমে ইন্টারনেট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার।

মঙ্গলবার থেকেই নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে গুয়াহাটিতেও পথে নেমে পড়েছেন কলেজের ছাত্রছাত্রীরা। প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন গুয়াহাটি মেডিক্যাল কলেজ ও আসাম ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ-সহ বেশির ভাগ কলেজের ছাত্রছাত্রীরা। রাজধানী গুয়াহাটির দিসপুরে যাওয়ার পথে মূল সড়ক গুয়াহাটি-শিলং রোড অবরোধ করেছেন তাঁরা। অবরোধ ওঠাতে কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে পুলিশ। ডিব্রুগড়ের চাউলধোওয়ায় বেধড়ক লাঠি চার্জের অভিযোগ ওঠে পুলিশের বিরুদ্ধে। পুলিশের লাঠির আঘাতে গুরুতর জখম হয়েছেন জনাকয়েক ছাত্র। বিক্ষোভের জেরে ডিব্রুগড় ও গুয়াহাটির বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে সমস্ত পরীক্ষা অর্নির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ রাখা হয়েছে।

অন্যদিকে আসামের মতই ক্ষোভে ফুঁসছে ত্রিপুরাও। বুধবার পরিস্থিতি সামলাতে সেনা নামানো হল ত্রিপুরার বেশ কয়েকটি এলাকায়। দুই কলাম সেনা নামানো হয়েছে। এক একটি কলামে থাকে ৭০ জন জওয়ান, যার নেতৃত্বে থাকেন এক বা দু’জন অফিসার। সেনা নামানো হয়েছে ত্রিপুরার কাঞ্চনপুর ও মনু এলাকায়। আর দুই কলাম সেনা নামানো হয়েছে অসমের বঙাইগাঁও এবং ডিব্রুগড়ে।
সেনাবাহিনীর এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, ‘ডিব্রুগড়ের লাহোওয়ালে সেনা নামানো হয়েছে। তারা পুলিশ ও প্রশাসনের সঙ্গে সহায়তা করবে। শান্তি বজায় রাখতে বাহিনী ইতিমধ্যেই এলাকায় ফ্ল্যাগ মার্চ শুরু করেছে।’
ত্রিপুরার পর এবার অসম। উত্তর পূর্ব ভারতের আরও একটি রাজ্যে ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করা হতে পারে এমনই মনে করা হচ্ছে।

The Post Viewed By: 68 People

সম্পর্কিত পোস্ট