চট্টগ্রাম সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯

২১ নভেম্বর, ২০১৯ | ৭:৫৬ অপরাহ্ন

অনলাইন ডেস্ক

সরকারবিরোধী বিক্ষোভ, চারদিন ‘অফলাইনে’ ইরান

ইরানে সরকার বিরোধী বিক্ষোভ বাড়তে থাকায় স্থানীয় সময় শনিবার (১৬ নভেম্বর) রাতে বন্ধ করে দেয়া ইন্টারনেট সংযোগ গত চার দিনেও চালু হয়নি। জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে দেশটিতে শুরু হয় ওই বিক্ষোভ। ইরানে ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধের বিষয়টি এরইমধ্যে উদ্বেগ সৃষ্টি করেছে আন্তর্জাতিক মহল। ফলে দেশটির আট কোটি মানুষ কার্যত হয়ে পড়েছেন অনলাইন যোগাযোগবিচ্ছন্ন। খবর বিবিসি’র।

ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ থাকার কারণে প্রবাসী এবং দেশের বাইরে থাকা ইরানিরা ভোগান্তিতে পড়েছেন। ভুক্তভোগীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানিয়েছেন, পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন না তারা। পরিবার ও বন্ধুদের খবর পাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন বলেও ভুক্তভোগীরা জানান।

বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন দেশের ইন্টারনেট সংযোগ ‘ট্র্যাক’ করার দায়িত্ব পালন করা নেটব্লকস জানিয়েছে, শনিবার ইন্টারনেট বন্ধ করে দেয়ার কারণে দেশটির ইন্টারনেট ট্রাফিক স্বাভাবিক মাত্রা থেকে নেমে এসেছে মাত্র পাঁচ শতাংশে।

এক নোটে বিবিসি পার্সিয়ানের সাংবাদিক বেহরাং তাজদিন জানান, ইরান ‘ইন্ট্রানেট’ বা আভ্যন্তরীন নেটওয়ার্ক তৈরির পেছনে বেশ কয়েক বছর ব্যয় করেছে। নির্ধারিত কিছু সরকারি দপ্তর ও ব্যাংকে রয়েছে সে সংযোগ। এতে করে প্রতিষ্ঠানগুলোর বহিঃবিশ্বের সঙ্গে ইন্টারনেট সংযোগ না থাকলেও দেশের ভেতরে ‘অনলাইনে’ থাকার সক্ষমতা রয়েছে। ওই নেটওয়ার্কে যেসব ওয়েবসাইট সংযুক্ত, কেবল সেগুলোতে প্রবেশাধিকার পাওয়া যাচ্ছে। এর মানে হচ্ছে ইরানিয়ান এপ বা ওয়েবসাইট কাজ করছে। কিন্তু আন্তর্জাতিক কোনো প্রবেশাধিকার নেই।

স্থানীয়দের অনেকই আভ্যন্তরীন ওই নেটওয়ার্কের বিষয়টি নিয়েও শঙ্কা প্রকাশ জানান, এ ধরনের নেটওয়ার্কের কারণে দেশটির বর্তমান ‘ইন্টারনেট ব্ল্যাকআউট’ আরও দীর্ঘায়িত হতে পারে। আর তা প্রভাব ফেলছে ইরানের অর্থনীতিতেও। প্রতিদিন আনুমানিক ছয় কোটি ডলারের ক্ষতি হচ্ছে বলেও সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো।

পূর্বকোণ/রাশেদ

The Post Viewed By: 51 People

সম্পর্কিত পোস্ট