চট্টগ্রাম রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯

১১ নভেম্বর, ২০১৯ | ৬:২৬ অপরাহ্ন

অনলাইন ডেস্ক

ভয়াবহ দাবানলে অস্ট্রেলিয়ার ১২০ স্থান এখনো পুড়ছে

বনের গাছ থেকে শুরু করে বসত বাড়ি; কিছুই রক্ষা পাচ্ছে না দাবানলের ভয়ঙ্কর থাবা থেকে। আগুনের লেলিহান শিখায় ভস্ম একের পর এক এলাকা।  নিউ সাউথ ওয়েলস এবং কুইন্সল্যান্ডের দুর্গত এলাকার বাসিন্দারা চরম আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন। দাবানলের গ্রাস থেকে বাঁচতে চরম অনিশ্চয়তা নিয়ে অনেকেই ছাড়ছেন এলাকা। বন্ধ রয়েছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো।

নিউ সাউথ ওয়েলস এবং কুইন্সল্যান্ডে দুই প্রদেশের অন্তত ১২০টি স্থানে এখনো আগুন জ্বলছে। এরমধ্যেই পুরো সাউথ ওয়েলসে জারি করা হয়েছে জরুরি অবস্থা। এদিকে দেশটির কর্তৃপক্ষ সতর্ক করে বলেছে, যেকোনো সময় দেশটির সিডনিতেও দাবানল ছড়িয়ে পড়তে পারে।

কেবল মানুষ নয়, দাবানলের গ্রাসের শিকার হচ্ছে বিলুপ্তপ্রায় এসব বিরল প্রজাতির অনেক বন্যপ্রাণি। বনে নিজেদের আবাস আর সঙ্গী হারিয়ে দিশেহারা তারা। দাবানল নিয়ন্ত্রণে বিরতিহীনভাবে কাজ করে যাচ্ছে অষ্ট্রেলিয়ার ফায়ারকর্মীসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের সদস্যরা। আগুন নেভাতে বিমান, হেলিকপ্টার, পানিবাহী গাড়ি ব্যবহারের পাশাপাশি প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থাই প্রয়োগ করছেন তারা। কিছু কিছু স্থানে তাদের সঙ্গে যোগ দিচ্ছেন স্থানীয় বাসিন্দারাও। তবে ক্রমেই আগুনের ভয়াবহতা বাড়তে থাকায় পুরো নিউ ওয়েলসে জরুরি অবস্থা জারি করেছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সপ্তাহখানেক ধরে চলা দাবানলে এ পর্যন্ত বাড়িঘর ছেড়ে নিরাপদ স্থানে সরে গেছেন কয়েক হাজার মানুষ। পুরোপুরি ধ্বংস হয়েছে দেড় শতাধিক বাড়ি। আগুন নেভাতে গিয়ে আহত হয়েছেন দুইজন ফায়ারকর্মী।

ভয়াবহ দাবানলের কারণে যখন অস্ট্রেলিয়ার দুটি প্রদেশ নাস্তানাবুদ, ঠিক তখন দেশটির বড় শহর সিডনিতেও আগুন ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে সতর্ক করা হয়েছে। এ সতর্কবাণী সত্যি হলে অস্ট্রেলিয়ার বড় একটি অংশ যে ভয়াবহ প্রাকৃতিক দুর্যোগের মুখে পড়বে, তাতে কোনো সন্দেহ নেই।

 

 

 

 

 

 

 

পূর্বকোণ/এম

The Post Viewed By: 79 People

সম্পর্কিত পোস্ট