চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৫ অক্টোবর, ২০১৯ | ৩:৩২ পূর্বাহ্ন

পূর্বকোণ ডেস্ক

চতুর্থ বাঙালির নোবেল জয় দারিদ্র্য

বিমোচনের গবেষণায় অর্থনীতির নোবেল তিনজনের

চতুর্থ বাঙালি হিসেবে এবার নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। যৌথভাবে একই সম্মানে ভূষিত হয়েছেন তার স্ত্রী এস্থার দুফলো এবং মার্কিন অর্থনীতিবিদ মাইকেল ক্রেমার। রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্সেস সোমবার অর্থনীতিতে চলতি বছরের নোবেলজয়ী হিসেবে ভারতীয় বাঙালি অভিজিৎ ব্যানার্জি, তার ফরাসি স্ত্রী এস্তার ডুফলো এবং মার্কিন নাগরিক মাইকেল ক্রেমারের নাম ঘোষণা করে।

উন্নয়ন অর্থনীতি-বিশেষ করে দারিদ্র্য দূরীকরণ বিষয়ে গবেষণায় অবদান রাখার জন্য অর্থনীতিতে এবার নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন এই ত্রয়ী। এর মধ্যদিয়ে চতুর্থ বাঙালি হিসেবে নোবেলের তালিকায় নাম তুলে নিলেন অভিজিৎ। এর আগে ১৯১৩ সালে প্রথম বাঙালি হিসেবে নোবেল জিতেন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। এরপর অর্থনীতিতে অমর্ত্য সেন। আর ২০০৬-এ শান্তিতে সম্মানজনক এ পুরস্কার ওঠে বাংলাদেশের ড. মুহাম্মদ ইউনূসের হাতে।

আর অভিজিতের ৪৫ বছর বয়সী স্ত্রী এস্থার দুফলো সর্বকনিষ্ঠ ও দ্বিতীয় নারী হিসেবে পেলেন অর্থনীতির নোবেল। ফরাসি নাগরিক এস্থারের আগে অর্থাৎ ২০০৯ সালে অর্থনীতি পরিচালনায় সহযোগিতার ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখার জন্য সম্মানজনক এ পুরস্কারে ভূষিত হন মার্কিন নারী অ্যালিনর অস্ট্রম।

ভারতের মুম্বাইয়ে জন্ম নেওয়া অভিজিৎ ব্যানার্জি নিজেও অধ্যাপনা করছেন এমআইটিতে। ৪৮ বছর বয়সী এই অর্থনীতিবিদ সেখানে ফোর্ড ফাউন্ডেশন ইন্টারন্যাশনাল প্রফেসর। তাদের সঙ্গে এবারের নোবেল পুরস্কার ভাগ করে নেওয়া মাইকেল ক্রেমার হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির গেটস প্রফেসর অব ডেভেলপমেন্ট সোসাইটিস।

সুইডিশ একাডেমি বলছে, সমস্যাগুলোকে স্বাস্থ্য, শিক্ষার মত আলাদা আলাদাভাবে ভাগ করে দেখলে, ছোট ছোট পর্যায়ে সমাধানের চেষ্টা করলে দারিদ্র্য বিমোচন যে সহজ হতে পারে, সেটাই গবেষণা করে দেখিয়েছেন এই তিন অর্থনীতিবিদ।
তাদের দেখানো পথে মাত্র দুই দশকে উন্নয়ন অর্থনীতির রূপরেখা অনেকটাই বদলে গেছে। সরাসরি সুফল পাওয়া গেছে ভারতের এক প্রকল্পে। সেখানে স্কুলে বিশেষ শিক্ষক দিয়ে আলাদাভাবে যত্ন নেওয়ায় উপকৃত হয়েছে ৫০ লাখ শিশু।
এবার নোবেল পুরস্কারের ৯০ লাখ সুইডিশ ক্রোনার ভাগ করে নেবেন এই তিন অর্থনীতিবিদ। আগামী ১০ ডিসেম্বর সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে।

The Post Viewed By: 301 People

সম্পর্কিত পোস্ট