চট্টগ্রাম বুধবার, ১৬ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১:৪০ পিএম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সৌদির তেল রক্ষায় যুক্তরাষ্ট্র সেনা পাঠাবে

যুক্তরাষ্ট্র ঘোষণা দিয়েছে সৌদি আরবের তেল স্থাপনাগুলো হামলা থেকে রক্ষার জন্য সেখানে সৈন্য পাঠানো হবে। মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপের সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘আত্মরক্ষামূলক ব্যবস্থা’ হিসেবে সৌদি আরবে মার্কিন সেনা মোতায়েন করা হবে। তবে কত সেনা পাঠানো হবে, তা নিশ্চিত করেননি তিনি। এদিকে দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানিয়েছেন, ইরানের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও রাষ্ট্রীয় কোষাগারকে কেন্দ্র করে নতুন মার্কিন নিষেধাজ্ঞা জারি হবে ।

গত শনিবার সৌদি আরবের তেল স্থাপনায় ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে হামলা চালানো হয়। আরামকোর সবচেয়ে বড় তেল পরিশোধনাগার আবকায়িক ও খুরাইস এলাকায় এ হামলার দায় স্বীকার করেছে ইরান-সমর্থিত ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা। তবে যুক্তরাষ্ট্র দাবি করেছে, ইরানই ওই হামলার জন্য দায়ী। সৌদি আরবও হামলার জন্য ইরানকে দায়ী করেছে।

আজ শনিবার বিবিসি অনলাইনের খবরে বলা হয়েছে, স্থানীয় সময় গতকাল শুক্রবার সকালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের বিরুদ্ধে ‘সর্বোচ্চ মাত্রার’ নিষেধাজ্ঞা প্রয়োগের ঘোষণা দিয়েছেন। তবে তিনি সামরিক সংঘাত এড়াতে চান বলে আভাস দিয়েছেন।  

সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে গতকাল মার্ক এসপের বলেন, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত যুক্তরাষ্ট্রের কাছে এ সহায়তা চেয়েছে। মার্কিন সেনারা ক্ষেপণাস্ত্র ও আকাশ পথে হামলাগুলোর দিকে নজর রাখবেন।

ইরান সৌদি আরবের আঞ্চলিক প্রতিপক্ষ এবং যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিদ্বন্দ্বী। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দায়িত্ব নেওয়ার পর ইরানের সঙ্গে পরমাণু চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্র নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নেয় এবং ইরানের ওপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। এ নিয়ে এ বছর ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক চরম আকার ধারণ করে।

পূর্বকোণ/তাসফিয়া

The Post Viewed By: 192 People

সম্পর্কিত পোস্ট