চট্টগ্রাম বুধবার, ১৩ নভেম্বর, ২০১৯

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১:২০ পূর্বাহ্ণ

‘অবৈধরা’ আসামে না, কোন রাজ্যেও থাকতে পারবে না : অমিত

‘অবৈধদের’ আসামেও থাকতে দেওয়া হবে না এবং অন্য রাজ্যেও ঢুকতে দেওয়া হবে না বলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নতুন এই বক্তব্য ভিন্ন ইঙ্গিতেরই প্রকাশ ঘটিয়েছে।

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : কথিত ‘অনুপ্রবেশকারী’ চিহ্নিত করতে ভারতের আসাম রাজ্যে বিজেপি সরকার যে নাগরিকপঞ্জি তৈরি করেছে, সেখান থেকে বাদ পড়া নাগরিকদের ‘অবৈধ’ বলে আখ্যা দিয়েছেন দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এমনকি তিনি বলেছেন, এই অবৈধরা আসামেও থাকতে পারবে না, তাদের অন্য কোনো রাজ্যেও ঢুকতে দেওয়া হবে না।
গতকাল সোমবার আসামের গৌহাটিতে বিজেপির নেতৃত্বাধীন উত্তর-পূর্ব গণতান্ত্রিক জোটের (এনইডিএ) এক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে অমিত একথা বলেন।

গত মাসে বিজেপি সরকার নাগরিকপঞ্জি প্রকাশের পর এই প্রথম রাজ্যটি সফরে গেলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। ওই নাগরিকপঞ্জি থেকে ১৯ লাখেরও বেশি নাগরিক বাদ পড়েছেন। এদের মধ্যে সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রয়াত ফখরুদ্দিন আলী আহমেদের পরিবারের সদস্য থেকে শুরু করে কারগিল যুদ্ধে অংশ নেওয়া সেনা কর্মকর্তা, বর্তমান ও সাবেক বিধায়ক, এমনকি সাবেক মুখ্যমন্ত্রীও বাদ পড়েছেন। এজন্য এই তালিকা নিয়ে খোদ রাজ্যের রাজনৈতিক দলগুলোই সমালোচনার তোপ দাগছে সরকারকে।
আসামের কর্মকর্তারা বিশেষ করে কট্টরপন্থিরা মনে করেন, প্রতিবেশি বাংলাদেশ থেকে বিপুলসংখ্যক বাসিন্দা আসামে ঢুকে ভোট প্রক্রিয়ায় অংশ নিচ্ছেন এবং রাজ্যের জনতাত্ত্বিক চিত্র বদলে দিচ্ছেন। এই তালিকায় যাদের জায়গা হয়নি, তারা আসামিজ পরিচিতি পাবেন না। এদের অনেক আগে থেকেই ‘অবৈধ বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী’ বিবেচনা করে আসছে রাজ্যের কট্টরপন্থি অংশ।

যদিও বিষয়টি নিয়ে ভারতের কেন্দ্রীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বাংলাদেশকে বলেছে, এটি ভারতেরই অভ্যন্তরীণ বিষয়। এ নিয়ে বাংলাদেশের চিন্তার কারণ নেই।

কিন্তু ‘অবৈধদের’ আসামেও থাকতে দেওয়া হবে না এবং অন্য রাজ্যেও ঢুকতে দেওয়া হবে না বলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর নতুন এই বক্তব্য ভিন্ন ইঙ্গিতেরই প্রকাশ ঘটিয়েছে।

The Post Viewed By: 289 People

সম্পর্কিত পোস্ট