চট্টগ্রাম সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

সর্বশেষ:

৯ জানুয়ারি, ২০২৩ | ৩:০৪ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট ভবন-কোর্টে হামলা, গ্রেপ্তার চার শতাধিক

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট প্যালেস, কংগ্রেস ও সুপ্রিম কোর্টে হামলা চালিয়েছে সদ্য সাবেক প্রেসিডেন্ট জেইর বলসোনারোর সমর্থকরা। এ ঘটনায় দেশটির পুলিশ চার শতাধিক মানুষকে গ্রেপ্তার করেছে। বার্তাসংস্থা রয়টার্স এ তথ্য জানিয়েছে।

রবিবার (৮ জানুয়ারি) এ হামলার সময় প্রেসিডেন্ট লুলা দ্য সিলভা প্যালেসে ছিলেন না। কর্মসূত্রেই তিনি সাও পাওলো গিয়েছিলেন।

 

ব্রাসিলিয়ার গভর্নর ইবানেস রোচা এক টুইট বার্তায় বলেছেন, ইতোমধ্যে হামলার সঙ্গে জড়িত ৪০০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এমন অপরাধের জন্য তাদের উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হবে। সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণকারী বাকিদের চিহ্নিত করতে কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। একইসঙ্গে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

এর আগে রবিবার দেশটির জাতীয় রঙের পোশাক পরে এবং জাতীয় পতাকা গায়ে জড়িয়ে হামলায় অংশ নেন বিক্ষোভকারীরা। এ সময় হামলাকারীদের সংখ্যা বেশি হওয়ায় পুলিশ তাদের ঠেকাতে পারেনি। পরে কিছু বিক্ষোভকারী ফাঁকা সিনেট অধিবেশন কক্ষে ঢুকে পড়েন। অন্যরা প্রেসিডেন্ট ভবন, সুপ্রিম কোর্ট ও অন্যান্য সরকারি ভবনে হামলা চালান।

 

এ ঘটনায় হামলাকারীদের ‘ফ্যাসিস্ট’ অভিহিত করে প্রেসিডেন্ট লুলা বলেছেন, হামলা চালাতে বলসোনারো তার সমর্থকদের উসকানি দিয়েছেন। এই ভাঙচুরকারীরা কারা, আমরা তা খুঁজে বের করব। আইনের পূর্ণ শক্তি দিয়ে তাদের দমন করা হবে।

অন্যদিকে দাঙ্গায় নিজের জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট বলসোনারো। অভিযোগকে ‘ভিত্তিহীন’ বলে অভিহিত করে তিনি ‘শান্তিপূর্ণ’ প্রতিবাদের অধিকারের পক্ষে নিজের অবস্থানের কথা তুলে ধরেছেন।

উল্লেখ্য, গত ডিসেম্বরে ব্রাজিলে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হয়। এতে বামপন্থী লুলার কাছে বলসোনারো পরাজিত হন। এই নির্বাচনের পর বলসোনারোর বিরুদ্ধে সহিংসতায় উসকানি দেওয়ার অভিযোগ তুলেছিলেন লুলা। তার শপথ গ্রহণের আগেই ৩০ ডিসেম্বর দেশ ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় চলে যান বলসোনারো।

 

পূর্বকোণ/এএস

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট