চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

২৪ ডিসেম্বর, ২০২২ | ১:৫৫ অপরাহ্ণ

অনলাইন ডেস্ক

চীনের আধিপত্য ও চীনের বিশ্বব্যাপী উচ্চাকাঙ্ক্ষার চ্যালেঞ্জ

দেখতে দেখতে একবিংশ শতাব্দীর আরও একটি বছর শেষ হতে চলেছে। ঘটনাবহুল ২০২২ সালে বিশ্ব রাজনীতিতে বারবারই উঠে এসেছে যুক্তরাষ্ট্র-সৌদি-চীন সম্পর্কসহ যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কায় সরকার পরিবর্তনের খবর। যুদ্ধে জড়িয়েছে রাশিয়া-ইউক্রেন। এছাড়া অর্থনৈতিক-রাজনৈতিক নানা টানাপড়েনেই বছর পার করে পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কা। উত্তেজনা ছড়িয়েছে আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘাতেও। এ বছর পৃথিবীর ইতিহাসে অনন্য হয়ে থাকবে।

বিশ্ব রাজনীতিতে ব্যাপক প্রভাব রয়েছে চীনের। বৈশ্বিকভাবে তাদের আধিপত্যও চোখে পড়ার মতো। সেই আধিপত্য ও বিশ্বব্যাপী তাদের যে উচ্চাকাঙ্ক্ষার চ্যালেঞ্জসহ অনেক খুঁটিনাটি বিষয় নিয়ে লিখিত হয়েছে প্রবন্ধগ্রন্থ ‘চীনের বিশ্বব্যাপী উচ্চাকাঙ্ক্ষার চ্যালেঞ্জ’। যার মূল লেখক শ্রী দীপাঞ্জন রায় চৌধুরী। শ্রী দীপাঞ্জন রায় চৌধুরী, কূটনৈতিক সম্পাদক, বিগত বেশ কয়েক বছর ধরে দ্যা ইকোনমিক টাইমস-এ তাঁর লেখা প্রকাশিত হচ্ছে। দ্যা ইকোনমিক টাইমস-এ শ্রী দীপাঞ্জন রায় চৌধুরীর প্রকাশিত অংশ থেকেই এই পুস্তকের অক্ষর গুলি বাছাই করা হয়েছে। তাঁর এই লেখাকে সম্পাদনা করেছেন শ্রী নরেন্দ্র কুমার।

বইয়ের ফ্যাল্পে লেখা হয়েছে, ঘটনা প্রবাহ যেদিকে ছুটে চলেছে, তাতে করে শুধু প্রতিবেশী দেশ নয় বরং চীনের সমসাময়িক কৌশলগত পরিকল্পনা সারা বিশ্বের কাছে চিন্তার বিষয় হয়ে উঠেছে। সম্প্রতি চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং-এর উচ্চাকাঙ্খা সারা পৃথিবীকে আরও ভাবিয়ে তুলেছে, তাঁর বক্তব্য অনুসারে চীন অতি শীঘ্র অর্থনীতিসহ ভৌগলিক রাজনীতিতে অত্যাধিক প্রভাবশালী হয়ে উঠবে।

চীন যেভাবে তার অর্থনৈতিক শক্তি বৃদ্ধি করে চলেছে, তাতে করে ভৌগলিক রাজনীতিতে তার এক বিশেষ প্রভাব দেখা যাচ্ছে। বিশেষ করে প্রতিবেশী দেশ দক্ষিণ এশিয়া, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, পূর্ব এশিয়া, ইউরোশিয়া, প্যাসেফিক, আফ্রিকা ও ল্যাটিন আমেরিকার উপর বিশেষ প্রভাব গড়ে উঠেছে।
এই বইকে তিনভাগে ভাগ করা হয়েছে। এই তিনভাগকে কেন্দ্র করে ভিন্ন ভিন্ন ভাবে এই অঝ্চলগুলোর রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটসহ নানা বিষয়-আশয় তুলে ধারা হয়েছে।
প্রথম ভাগ ইউরোপ এবং আমেরিকা, দ্বিতীয় ভাগে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া এবং দক্ষিণ এশিয়া ও তৃতীয় ভাগে আফ্রিকা। এই তিনভাগে বইটি প্রায় ৩০টি প্রবন্ধ গ্রন্থিত হয়েছে। যার মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য প্রবন্ধগুলো হলো- চীনের সিনেমা জগতের উন্নতি তার উচ্চাকাঙ্ক্ষায় বাতাস জোগাচ্ছে, সারা বিশ্বে নিজের প্রভাব স্থাপনের উদ্দেশ্যে চীন ‘তিনটি-যুদ্ধ’ পন্থা বেছে নিয়েছে French MoD Think Tank, BRI মধ্য এবং পূর্ব ইউরোপ চীনের ইউরোর পথ, চীন ও ইউএস স্টক এক্সচেঞ্জের খেলায়, বাণিজ্যিক যুদ্ধের সূত্রপাত, চীনের পদচিহ্ন দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায়, ভারতের সুরক্ষা চ্যালেঞ্জের মুখে, চীনের পরিকাঠামো গড়ার পরিকল্পনায় মায়ানমারের স্বস্তির নিঃশ্বাস, চীন-মায়ানমারের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যিক চুক্তি সংকটের মুখে, ঢাকার প্রতিরক্ষা নিয়ে চীনের মনোভাব দেখে, এর দীর্ঘায়ু ও গুণগতমান নিয়ে উঠছে প্রশ্ন, বাংলাদেশে গড়ে ওঠা চীনের প্রকল্পে একাধিক সমস্যা, বেইজিং-এর আফগানিস্তান নিয়ে দ্বিধা তালিবান কী পারবে। চীনকে সুরক্ষিত করতে?, মায়ানমারের সাথে হাত মিলিয়েছে পাকিস্তান সৈন্য চীনের অস্ত্র, ব্যবসার পথ আরও সুগম? মায়ানমারের সাথে জোট বাঁধার জন্য পাকিস্তানকে প্ররোচিত করেছে চীন, মায়ানমার-থাইয়ের সীমান্ত দিয়ে চলছে চীনের অনৈতিক ব্যবসা, উন্নতির পথে চীনের আকস্মিক পদক্ষেপ, শি-কে লেখা চিঠি বেইজিং কোলম্বোকে ঋণের জালে জড়িয়ে দিচ্ছে, অভিযোগ শ্রীলঙ্কার সাংসদের, আফ্রিকার দিকে ভারত বাড়াচ্ছে বন্ধুত্বের হাত, অথচ চীন সৃষ্টি করছে চাপ নতুন বই, আফ্রিকান মিডিয়াতে চীনের প্রভাব মহাদেশের গণতন্ত্রের জন্য চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে অন্যতম।

বইয়ের ভূমিকায় বলা হয়েছে- ‘ঘটনা প্রবাহ যেদিকে ছুটে চলেছে, তাতে করে শুধু প্রতিবেশী দেশ নয় বরং চীনের সমসাময়িক কৌশলগত পরিকল্পনা সারা বিশ্বের কাছে চিন্তার বিষয় হয়ে উঠেছে। সম্প্রতি চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং-এর উচ্চাকাঙ্খা সারা পৃথিবীকে আরও ভাবিয়ে তুলেছে, তাঁর বক্তব্য অনুসারে চীন অতি শীঘ্র অর্থনীতি সহ ভৌগলিক রাজনীতিতে অত্যাধিক প্রভাবশালী হয়ে উঠবে। চীনের এই উন্নতি সকলের কপালেই ভাঁজ ফেলেছে।

চীন যেভাবে আঞ্চলিক আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টা করছে তা দেখে মনে হচ্ছে সারা বিশ্বেই সে নিজের ছাপ ছাড়তে বিশেষ আগ্রহী। চীন যেভাবে তার অর্থনৈতিক শক্তি বৃদ্ধি করে চলেছে, তাতে করে ভৌগলিক রাজনীতিতে তার এক বিশেষ প্রভাব দেখা যাচ্ছে। বিশেষ করে প্রতিবেশী দেশ দক্ষিণ এশিয়া, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, পূর্ব এশিয়া, ইউরোশিয়া, প্যাসেফিক, আফ্রিকা ও ল্যাটিন আমেরিকার উপর বিশেষ প্রভাব গড়ে উঠেছে।

চীনের এই উন্নতির বেশ কয়েকটা দিক তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন শ্রী দীপাঞ্জন রায় চৌধুরী, কূটনৈতিক সম্পাদক, বিগত বেশ কয়েক বছর ধরে দ্যা ইকোনমিক টাইমস-এ তাঁর লেখা প্রকাশিত হচ্ছে। দ্যা ইকোনমিক টাইমস-এ শ্রী দীপাঞ্জন রায়। চৌধুরীর প্রকাশিত অংশ থেকেই এই পুস্তকের অক্ষর গুলি বাছাই করা হয়েছে। চীনের উচ্চাকাঙ্ক্ষা কীভাবে আমেরিকা, ইউরোপ, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, দক্ষিণ এশিয়া এবং বিশেষ করে প্রাকৃতিক সম্পদে সমৃদ্ধ আফ্রিকার উপর প্রভাব ফেলছে, এই পুস্তক পড়লে পাঠক সেই বিষয়ে এক বিশেষ অভিজ্ঞতা লাভ করবে।

পরিশেষে বইয়ের ব্যাপক প্রচার ও প্রসার কামনা করছি।

শেয়ার করুন