চট্টগ্রাম রবিবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২৩

সর্বশেষ:

৮ ডিসেম্বর, ২০২২ | ১:০৪ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সন্ত্রাসী সন্দেহে জার্মানিতে ২৫ জন গ্রেপ্তার

জার্মানির ১১টি রাজ্যে অভিযান চালিয়ে অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসী সংগঠন ‘রাইশব্যুর্গার আন্দোলন’র সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ২৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

দেশটির আইনমন্ত্রী মার্কো বুশমান বলেন, রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে সশস্ত্র হামলার পরিকল্পনা করা সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে এই অভিযান চালানো হয়েছে। জার্মানির ১৬টি রাজ্যের ১১টিতে অভিযান চালানো হয়। গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিরা একটি সন্ত্রাসী সংগঠনের সঙ্গে জড়িত, যেটি ২০২১ সালের নভেম্বরে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

 

জানা গেছে, ‘রাইশব্যুর্গার আন্দোলন’-এর সঙ্গে কয়েকটি ছোট সংগঠন ও ব্যক্তি জড়িত। সাধারণত ব্রান্ডেনবুর্গ, মেকলেনবুর্গ-ফোরপোমান ও বাভারিয়া রাজ্যে তারা সক্রিয়। রাইশব্যুর্গাররা ট্যাক্স বা জরিমানা দিতে চান না। নিজেদের বাড়ি-ঘর, সম্পদ ইত্যাদিকে জার্মান প্রজাতন্ত্রের অধীনে নয়, বরং স্বাধীন বলে বিবেচনা করেন। তারা জার্মান সংবিধান ও আইন স্বীকার করেন না, কিন্তু সেই আইন ব্যবহার করেই সরকার ও কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অজস্র মামলা করেন। তাদের অধিকাংশই নিজেদের তৈরি পাসপোর্ট ও ড্রাইভিং লাইসেন্স ব্যবহার করেন।

জার্মান ‘রাইশ’ শব্দের অর্থ সাম্রাজ্য, আর ‘ব্যুর্গার’ মানে হচ্ছে নাগরিক। যার মাধ্যমে রাইশব্যুর্গাররা নিজেদের জার্মান সাম্রাজ্যের নাগরিক বলে দাবি করেন। আধুনিক জার্মানিকে নিজেদের রাষ্ট্র বলে মানতে রাজি নন তারা। তাদের দাবি, ১৯৩৭ বা ১৮৭১ সালের জার্মান সাম্রাজ্যের সীমানাই আসল জার্মানি। বর্তমান জার্মানির সরকার, পার্লামেন্ট, বিচারব্যবস্থা এবং নিরাপত্তাবাহিনী মিত্রশক্তির নিয়ন্ত্রণে থাকা পুতুল।

 

পূর্বকোণ/এএস

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট