চট্টগ্রাম শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২২

২৩ অক্টোবর, ২০২২ | ১২:৫০ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ইউক্রেনের বৈদ্যুতিক গ্রিডে রুশ ক্ষেপণাস্ত্র হামলা, অন্ধকারে ১৫ লাখ মানুষ

এবার ইউক্রেনের পাওয়ার গ্রিডে রাশিয়া ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। এতে দেশটির ১৫ লাখেরও বেশি মানুষ অন্ধকারে রয়েছেন।

শনিবার (২২ অক্টোবর) এক ভিডিও বার্তায় তিনি এ তথ্য জানান।

জেলেনস্কি বলেন, ভয়াবহ আকারে রুশ হামলা হয়েছে। এই গণ-হামলার পরিসর খুব বিস্তৃত। পশ্চিম, মধ্য ও দক্ষিণ ইউক্রেনের অঞ্চলগুলোতে এই হামলা হয়েছে। শনিবার আমাদের বাহিনী ২০টি ক্ষেপণাস্ত্র এবং ১০টিরও বেশি ইরানের তৈরি শহীদ-১৩৬ ড্রোন ভূপাতিত করেছে। অবশ্যই রুশ ক্ষেপণাস্ত্র ও হামলাকারী ড্রোন শতভাগ ভূপাতিত করার প্রযুক্তিগত সক্ষমতা আমাদের নেই। তবে আমি নিশ্চিত ধীরে ধীরে অংশীদারদের সাহায্যে আমরা এ সক্ষমতা অর্জন করব।

 

এর আগে দেশটির বিমানবাহিনীর কমান্ড বলেন, ইউক্রেনে ৩৩টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়েছে, ১৮টি গুলি করে ভূপাতিত করেছে ইউক্রেনীয় বাহিনী।

জেলেনস্কির উপদেষ্টা কিরিলো টিমোশেঙ্কো বলেছেন, কিয়েভের কিছু অংশ সন্ধ্যার মধ্যে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। স্থানীয়দের দেওয়া সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, কিয়েভকে ‘বেশ কয়েক দিন বা সপ্তাহ’ বিদ্যুৎ এবং জ্বালানি ছাড়াই চলতে হতে পারে। এ ঘটনায় দেশের অন্তত ১৫ লাখ মানুষ বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

প্রেসিডেন্টের আরেক সহযোগী মিখাইলো পোদোলিয়াক বলেন, মস্কো এই হামলার মাধ্যমে ইউরোপে উদ্বাস্তুদের একটি নতুন ঢেউ তৈরি করতে চায়।

অন্যদিকে, পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্রি কুলেবা টুইটারে বলেছেন যে হামলা গণহত্যার সামিল।

 

এদিকে, দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর খেরসন থেকে বেসামরিক নাগরিকদের অন্যত্র যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন রুশ-সমর্থিত নেতারা। শনিবার টেলিগ্রাম অ্যাপে এক বার্তায় আঞ্চলিক প্রশাসন জানিয়েছে, বেসামরিক নাগরিকদের খেরসন শহর ত্যাগ করার আহ্বান জানানো হচ্ছে। উত্তেজনাপূর্ণ পরিস্থিতি, ইউক্রেনীয় বাহিনীর হামলা ও পরিকল্পনার কথা উল্লেখ করা হয় ওই বার্তায়। তারা বেসামরিক নাগরিকদের রুশ-নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলে প্রবেশের জন্য নদীপথ অতিক্রম করতে নৌকা ব্যবহার করারও আহ্বান জানিয়েছে।

 

পূর্বকোণ/এএস

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট