চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

১৮ অক্টোবর, ২০২২ | ১০:৪৮ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

পদদলিত হয়ে ১২৫ প্রাণহানি: গুড়িয়ে দেয়া হচ্ছে ইন্দোনেশিয়ার সেই স্টেডিয়াম

দুই সপ্তাহ আগে ইন্দোনেশিয়ার পূর্ব জাভা প্রদেশের একটি স্টেডিয়ামে ফুটবল ম্যাচকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ ও পদদলিত হয়ে ১২৫ জনের প্রাণহানি ঘটে। সেই স্টেডিয়ামটি ভেঙে ফেলে আবার নতুন করে নির্মাণ করা হবে বলে জানিয়েছে ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো।

মঙ্গলবার (১৮ অক্টোবর) দেশটির রাজধানী জাকার্তায় ফিফার প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফান্তিনোর সঙ্গে বৈঠক শেষে এই ঘোষণা দেন তিনি।

 

আর ১ বছর পর ইন্দোনেশিয়ায় অনুর্ধ্ব-২০ ফুটবল বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। ফিফা প্রেসিডেন্ট দেশটিতে ফুটবল খেলার সংস্কার ও রূপান্তরে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন বলে জানান জোকো উইদোদো। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, আমরা ফিফার নিয়মনীতি মেনে মালাংয়ের কাঞ্জুরুহান স্টেডিয়াম ভেঙে ফেলব এবং পুনর্নির্মাণ করব। নতুন নির্মিত স্টেডিয়ামে খেলোয়াড় এবং সমর্থক উভয়ের নিরাপত্তা নিশ্চিতে যথাযথ ব্যবস্থা থাকবে।

১ অক্টোবর ইন্দোনেশিয়ার পূর্ব জাভা প্রদেশের মালাংয়ের কাঞ্জুরুহান স্টেডিয়ামে জাভানিজ ডার্বিতে মুখোমুখি হয় আরেমা-পার্সেবায়া। ম্যাচটিতে ২-৩ গোলে হেরে যায় আরেমা। দল হারার পর আরেমার সমর্থকেরা মাঠে নেমে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদানে গ্যাস ও ফাঁকা গুলি ছোড়ে পুলিশ।

 

এতে পদদলিত হয়ে প্রায় ১২৫ জন মারা যায়। নিহতদের মধ্যে ছিলো ৪০ জন শিশু। আর এই ঘটনাকে ‘ফুটবলের জন্য কালো দিনগুলোর একটি’বলে অভিহিত করেছিলেন ফিফা প্রেসিডেন্ট। এই ঘটনার পর থেকে ইন্দোনেশিয়ার সর্বোচ্চ ফুটবল লিগ ‘লিগা-১’ বন্ধ রয়েছে। ফুটবল ম্যাচে নিরাপত্তা নিশ্চিতের তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত লিগ বন্ধ থাকবে।

 

পূর্বকোণ/মামুন/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট