চট্টগ্রাম রবিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২২

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২ | ৭:২১ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

শিনজো আবের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার খরচ নিয়ে জাপানে ক্ষোভ

জাপানের সদ্যপ্রয়াত প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার খরচ নিয়ে দেশটিতে সমালোচনা তৈরি হয়েছে। সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় হওয়া খরচের চেয়েও আবের বিদায়ে বেশি বরাদ্দ রাখা হয়েছে। আনুষ্ঠানিকভাবে রানি এলিজাবেথের শেষবিদায়ের খরচ না জানালেও দেশটির ট্যাবলয়েড পত্রিকা ডেইলি মিররে ৮০ লাখ পাউন্ড বা ১৩০ কোটি ইয়েন খরচের কথা বলা হয়েছে। এদিকে শিনজো আবের জন্য এ খাতে বরাদ্দ করা হয়েছে ১৬৬ কোটি ইয়েন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, আবের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় খরচ বেশি হওয়া নিয়ে জাপানিরা প্রশ্ন তুলেছেন। স্থানীয় সংবাদ সংস্থা কিয়োদো পরিচালিত এক জরিপে দেখা গেছে, জরিপে অংশগ্রহণকারীদের ৭০ শতাংশ বলেছেন, সরকার আবের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় অনেক বেশি খরচ করছে।

 

আগামী মঙ্গলবার শিনজো আবের রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠিত হবে। অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানকে সামনে রেখে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদার সঙ্গে দেখা করতে বিদেশি অতিথিরা জাপানে আসছেন। তিন দিনের এ আয়োজনকে ‘অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া কূটনীতি’ বলে উল্লেখ করেছেন সাধারণ নাগরিকরা।

কয়েক দশকের মধ্যে প্রথমবারের মতো মুদ্রাস্ফীতিতে আছে জাপান। সমালোচকেরা মনে করেন, আবের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় এত বেশি খরচ না করে তা নিম্ন আয়ের পরিবারগুলোকে সহায়তায় বরাদ্দ দেওয়া যেত। রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া আয়োজনকে কেন্দ্র করে বর্তমান প্রশাসনের প্রতিও মানুষের সমর্থন কমতে দেখা গেছে বলে উল্লেখ করেছে বিবিসি।

 

জাপানিদের কারও কারও ধারণা, আবের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার জন্য যা বরাদ্দ করা হয়েছে, তার চেয়ে প্রকৃত খরচ অনেক বেশি হতে পারে। দৃষ্টান্ত হিসেবে টোকিও অলিম্পিকের কথা উল্লেখ করছেন তারা। টোকিও অলিম্পিকে ১ হাজার ৩০০ কোটি ডলার খরচ হয়েছিল, যা মূল বরাদ্দের চেয়ে প্রায় দ্বিগুণ।

আবের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার জন্য যে পরিমাণ অর্থ বরাদ্দ করা হয়েছে, তার প্রায় অর্ধেকই খরচ হবে কঠোর নিরাপত্তা নিশ্চিতে। বিদেশি অতিথিদের অভ্যর্থনায় খরচ হবে এক-তৃতীয়াংশ অর্থ। মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস, ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী অ্যান্থনি আলবানিজসহ ২১৭টি দেশের ৭০০ অতিথি অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় উপস্থিত থাকবেন।

 

তবে জাপানের অধিবাসীদের অনেককে একটি বিষয় সামনে নিয়ে আসতে দেখা গেছে। তারা বলছেন, রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় যেসব বিশ্বনেতা উপস্থিত হয়েছিলেন, তাদের বেশিরভাগই বর্তমানে ক্ষমতাসীন। আর শিনজো আবের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় যারা উপস্থিত হবেন, তাঁরা বেশির ভাগই সাবেক নেতা।

উল্লেখ্য, জাপানে সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে প্রধানমন্ত্রী ছিলেন আবে। গত ৮ জুলাই জাপানের নারা শহরে নির্বাচনী প্রচারণাকালে গুলিতে নিহত হন ৬৭ বছর বয়সী আবে। জাপানে রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া হতে যাওয়া দ্বিতীয় প্রধানমন্ত্রী তিনি। এর ৫৫ বছর আগে শিগেরু ইয়োশিদার রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া করা হয়েছিল। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ–পরবর্তী সময়ে জাপানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি। স্থানীয় কিছু সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ১৯৬৭ সালে ইয়োশিদার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় ১ কোটি ৮০ লাখ ইয়েন খরচ হয়েছিল, যার বর্তমান মূল্য ৭ কোটি ইয়েন।

 

পূর্বকোণ/এএস/পারভেজ

শেয়ার করুন