চট্টগ্রাম রবিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২২

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২ | ১:২৪ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

জাপানে টাইফুনের আঘাত, ২ জনের প্রাণহানি

জাপানের মধ্যাঞ্চলে ঘূর্ণিঝড় টাইফুনের আঘাতে অন্তত দুইজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে লণ্ডভণ্ড হয় বেশ কয়েকটি এলাকা। এতে বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে দেড় লাখের মতো পরিবার।

রাজধানী টোকিওর দক্ষিণ-পশ্চিমের শহর শিজুওকা ঘূর্ণিঝড়ে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। জাপানের আবহাওয়া সংস্থা (জেএমএ) জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার বৃষ্টি শুরু হওয়ার পর থেকে রেকর্ড ৪১৭ মিমি বৃষ্টিপাত হয়েছে সেখানে। টাইফুনের কারণে প্রতি ঘণ্টায় বাতাসের গতিবেগ ৬৫ কিলোমিটার থেকে সর্বোচ্চ ৯০ কিলোমিটার পর্যন্ত ছিল।
জানা গেছে, প্রবল বৃষ্টির ফলে ভূমিধসে ৪০ বছর বয়সী একজন নিহত হয়েছেন। ২৯ বছর বয়সী একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয় পানিতে ডুবে থাকা একটি গাড়ির ভেতর থেকে।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছে প্রায় দেড় লাখের মতো পরিবার বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে বলে। দ্রুত বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া লাইন মেরামত করার কথাও জানিয়েছে তারা।

সেন্ট্রাল রেল সার্ভিস বিভাগ কিছু বুলেট ট্রেন পুনরায় চালু করেছে। গত শুক্রবার থেকে ভারি বৃষ্টির কারণে বন্ধ ছিল ট্রেন চলাচল।

জেএমএ শনিবার সকালে শিজুওকায় আরও প্রবল বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে এবং ভূমিধস ও বন্যার জন্য সতর্কতা জারির আহ্বান জানিয়েছে।

ইয়োকোহামা শহর, যেটি টোকিও থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত। শনিবার সেখান থেকে ৩ হাজার বাসিন্দাকে সরিয়ে নেওয়ার কথা বলেছে কর্তৃপক্ষ।

টাইফুন নানমাদোল, জাপানে বছরের পর বছর আঘাত হানা সবচেয়ে বড় ঘূর্ণিঝড়গুলোর মধ্যে একটি। শক্তিশালী টাইফুন নানমাদোলের তাণ্ডবে লন্ডভন্ড দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের শহর কিউশুসহ উপকূলীয় বেশ কয়েকটি অঞ্চল। স্থানীয় সময় রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় জাপানের উপকূলীয় অঞ্চলে আঘাত হানে টাইফুন নানমাদোল। প্রায় দেড়শ মাইল গতিবেগে আঘাত হানে ঝড়টি।

এর প্রভাব পড়ে কিউশু, মিয়াজাকি, শুকোকুসহ আরও ৪টি অঞ্চলে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৩৭ লাখ ঘরবাড়িসহ নানা স্থাপনা। সোমবার দেশটির পশ্চিমাঞ্চলে প্রচণ্ড বাতাস ও রেকর্ড বৃষ্টিপাত হয় নানমাদোলের কারণে। এতে নিহত হন দুই জন। সূত্র: রয়টার্স

পূর্বকোণ/আর/এএইচ

শেয়ার করুন