চট্টগ্রাম শনিবার, ১৩ আগস্ট, ২০২২

সর্বশেষ:

৬ জুলাই, ২০২২ | ১২:০৩ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ঘাতকের গুলিতে বাবা-মা’র মৃত্যু, নির্বাক চোখে তাকিয়ে শিশু

যুক্তরাষ্ট্রে স্বাধীনতা দিবসের কুচকাওয়াজে বন্দুক হামলায় নিহত হয়েছিলেন ৬ জন। এ ঘটনায় আহত হন আরও অন্তত ২৪ জন। স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে এই হামলা নিঃসন্দেহে বেদনার। তবে এর চেয়েও কষ্টের দৃশ্য হল সদ্য এতিম হওয়া ছোট্ট এক শিশুর চেহারায়।

শিকাগোর শহরতলী হাইল্যান্ড পার্কে স্বাধীনতা দিবসের কুচকাওয়াজে নিহত ৬ জনের মধ্যে এক দম্পতিও রয়েছেন। হামলার পর ঘটনাস্থলে ওই দম্পতির ২ বছর বয়সী শিশুকে নির্বাক চোখে তাকিয়ে থাকতে দেখা গেল। সদ্য বাবা-মা হারানো এই শিশুর নাম এইডেন। সোমবারের ওই হামলায় তার বাবা-মা দু’জনই প্রাণ হারান।

বুধবার (৬ জুলাই) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি। পুলিশ বলছে, এইডেনের বাবা-মা ইরিনা ম্যাকার্থি এবং কেভিন ম্যাকার্থি দু’জনই সোমবারের ওই হামলায় প্রাণ হারান।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সোমবার সকালে শিকাগোর শহরতলী হাইল্যান্ড পার্কে স্বাধীনতা দিবসের কুচকাওয়াজের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এইডেনের বাবা-মা ইরিনা ম্যাকার্থি এবং কেভিন ম্যাকার্থি। তবে বিশৃঙ্খলার সময় শিশুটিকে তার পিতা-মাতার কাছ থেকে আলাদা করা হয়।

পুলিশ বলছে, প্যারেডে অংশ নেওয়া কিছু লোক এইডেনকে হামলাস্থল থেকে নিরাপদে সরিয়ে নিয়ে যায়। পুলিশ পরে তাকে তার দাদা-দাদির হাতে তুলে দেয়।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি বলছে, ঘাতকের গুলিতে বাবা-মা হারানোর পর হামলাস্থলে হতবিহ্বল চোখে শিশু এইডেনের তাকিয়ে থাকার এবং ভারাক্রান্ত মনে ঘুরে বেড়ানোর ছবি ভাইরাল হয়ে যায়। মূলত নিজের পরিবারের সাথে পুনরায় মিলিত হওয়ার আগে এইডেনের এই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে।

বেশ কয়েকটি রিপোর্টের উদ্ধৃতি দিয়ে বিবিসি বলছে, শিশুটি হতবাক হয়ে তাকিয়ে ছিল এবং তার দাদা-দাদীকে বলেছিল যে, ‘মা এবং বাবা শিগগিরই আসছেন’। এদিকে এই শিশুটির জন্য অর্থ সংগ্রহের কাজ শুরু হয়েছে।

উল্লেখ্য, স্থানীয় সময় সোমবার সকালে শিকাগোর শহরতলী হাইল্যান্ড পার্কে স্বাধীনতা দিবসের কুচকাওয়াজ শুরুর পরপরই সকাল সোয়া দশটার দিকে প্রথম গুলির শব্দ পাওয়া যায়। বন্দুক হামলায় অন্তত ছয়জন নিহত হন। এ ঘটনায় আহত হন কমপক্ষে আরও ২৪ জন। পরে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

পুলিশ বলছে, ওই বন্দুকধারী ছাদ থেকে এলোপাথাড়ি গুলিবর্ষণ করেন। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ২২ বছর বয়সী রবার্ট ই ক্রিমো নামের এক যুবককে আগেই চিহ্নিত করেছিল হাইল্যান্ড পার্ক পুলিশ। পরে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। অল্প সময় ধাওয়া করার পরই পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। তার বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে।

 

 

পূর্বকোণ/এসি

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট