চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০২ মার্চ, ২০২১

সর্বশেষ:

২৬ জুলাই, ২০১৯ | ২:১৬ পূর্বাহ্ণ

পূর্বকোণ ডেস্ক

ভারতের লোকসভায় তিন তালাক বিল পাস

লোকসভায় তিন তালাক বিল পাশ করাল মোদি সরকার। গতকাল বৃহস্পতিবার প্রায় দিনভর বিতর্কে কংগ্রেস, তৃণমূল, বিজেডি-সহ অধিকাংশ বিরোধী দল ওই বিলের বিরোধিতা করলেও ধ্বনি ভোটে পাশ হয়ে গিয়েছে তিন তালাক বিল। ধ্বনি ভোটে খারিজ হয়ে গিয়েছে আসাদউদ্দিন ওয়েইসির আনা সংশোধনীও। ওয়াকআউট করেছে তৃণমূল, বিজেডি সাংসদরা। যদিও রাজ্যসভায় এই বিল পাশ হবে কিনা, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।
মুসলিম শরিয়ত আইনে স্বামী তিনবার তালাক দিলেই সেটা বৈধ। অর্থাৎ স্ত্রীকে তিনবার তালাক বলে দিলেই বিচ্ছেদ হয়ে যেত। এমনকি, ফোনে তিনবার তালাক বললেও তা বৈধ বলেই গণ্য হত। শরিয়তি আইনে এই প্রথাকে বলা হয় ‘তালাক এ বিদ্দত’। এই তালাক-এ-বিদ্দতকেই বেআইনি ঘোষণা করে কড়া শাস্তির বিধানের প্রস্তাব রয়েছে তিন তালাক বিলে। তিন তালাক দিলে স্বামীর কারাবাসের বিধানও রয়েছে। অর্থাৎ ফৌজদারি অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে।
আর এখানেই আপত্তি তুলেছেন সিংহভাগ বিরোধী দলগুলির সাংসদরা। কংগ্রেসের লোকসভার দলনেতা অধীর চৌধুরীর বক্তব্য, তিন তালাককে ফৌজদারি অপরাধ হিসেবে গণ্য করার বিরোধী তাঁরা। কংগ্রেসেরই শশী তারুর প্রশ্ন তোলেন, সুপ্রিম কোর্টই যখন বলে দিয়েছে তিন তালাক অবৈধ, তখন নতুন করে আইন আনার প্রয়োজন কী? ফৌজদারি দ-বিধির বিরুদ্ধে ছিলেন অল ইন্ডিয়া মজলিস-এ-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন-এর (এআইএমআইএন) সাংসদ আসাদউদ্দিন ওয়েইসি। একই সঙ্গে তাঁর প্রশ্ন, ‘তিন তালাক দিলে স্বামীর তিন বছরের কারাদ-ের বিধান রয়েছে বিলে। কিন্তু স্বামী জেলে থাকলে তাঁর খোরপোশ কোথা থেকে দেবেন স্বামী, আর ওই মহিলাই বা কী ভাবে খোরপোশ পাবেন। তাই এই আইন কার্যত মহিলাদের শাস্তি দেয়ার নামান্তর, মত ওয়েইসির।
ফৌজদারি বিধি দ-বিধি নিয়ে আপত্তি জানিয়েছে তৃণমূলও। দলের লোকসভার দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে ওয়াকআউট করেন সাংসদরা। বিলের বিরোধিতা করে ওয়াকআউটে শামিল হন বিজেডি সাংসদরাও। তেলুগু দেশম পার্টির জয়দেব গাল্লার প্রশ্ন, হিন্দু আইনে বিবাহ-বিচ্ছেদ ফৌজদারি অপরাধ নয়, খ্রিস্ট ধর্মেও নয়, তাহলে শুধুমাত্র মুসলিম আইনেই কেন হবে।’’বিলটিকে সিলেক্ট কমিটিতে পাঠানোর দাবিও ওঠে বিরোধী শিবির থেকে।
কেন্দ্র অবশ্য একাধিক যুক্তি দিয়েছে বিলের পক্ষে। সংসদে বিল পেশ করেন আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ। তাঁর বক্তব্য, ‘‘পাকিস্তান, মালয়েশিয়ার মতো অন্তত ২০টি মুসলিম দেশেও তিন তালাক নিষিদ্ধ। তাহলে আমরা ধর্মনিরপেক্ষ দেশ হয়ে কেন সেটা করতে পারব না। যে সব দেশে শরিয়ত আইন চালু, সেখানেও তিন তালাক ফৌজদারি অপরাধ।’’ ওয়েইসির প্রশ্নের উত্তরে বিজেপি সাংসদ পুনম মহাজন আবার পাল্টা ব্যক্তিগত আক্রমণ করে বলেন, আপনার বোনকে কেউ তিন তালাক দিলে আপনার ভাল লাগবে তো?
দিনভর বিতর্কের শেষে স্পিকার ধ্বনি ভোটে পাশ হয়ে যায় তিন তালাক বিল। আজ শুক্রবারই রাজ্যসভায় পেশ হতে পারে এই বিল। তবে লোকসভার মতো রাজ্যসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা নেই বিজেপির। তাই বিরোধীদের সমর্থন ছাড়া কার্যত বিল পাশ কার্যত অসম্ভব।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 216 People

সম্পর্কিত পোস্ট