চট্টগ্রাম সোমবার, ০৮ মার্চ, ২০২১

২৫ জুলাই, ২০১৯ | ৫:০৬ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সোনার হার-কানের দুল বের হলো তরুণীর পেট থেকে

কয়েক দিন ধরেই ২২ বছর বয়সী রুনি খাতুনের পেটের আকার অস্বাভাবিকভাবে বড় হয়ে যাচ্ছিল। সেই সঙ্গে ছিল প্রচণ্ড পেট ব্যথা। কিছু খেলেই বমি হয়ে যেত। এ অবস্থায় পরিবারের সদস্যরা তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে।

চিকিৎসকরা আলট্রাসনোগ্রাফি করে আঁতকে ওঠেন। কারণ আলট্রাসনোগ্রাফি করে রুনির পাকস্থলীতে অসংখ্য ধাতব পদার্থ দেখতে পান তারা। এর পরপরই চিকিৎসকরা অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন।

বুধবার (২৪ জুলাই) রামপুরহাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের চিকিৎসক সিদ্ধার্থ বিশ্বাস অস্ত্রোপচারের জন্য রুনির পাকস্থলিতে অস্ত্রোপচার করে আরো অবাক হয়ে যান। একে একে রুনির পেট থেকে বেরিয়ে আসে স্বর্ণের হার, কানের দুল, হাতের বালা থেকে শুরু করে কয়েন।

টানা এক ঘণ্টা ১৫ মিনিট ধরে অস্ত্রোপচারের পর হিসাব করে দেখা যায়, রুনির পেটে ৬০টি কয়েন, একটি স্বর্ণের হার, গোটা কয়েক কানের দুল ও বালা জমা হয়েছিল। সবমিলিয়ে প্রায় ২ কিলোগ্রাম ধাতব পদার্থ।

ডা. সিদ্ধার্থ বিশ্বাস জানান, বিপুল পরিমাণ ধাতব পদার্থ জমা থাকার কারণেই রুনির পাকস্থলি স্বাভাবিকভাবে কাজ করছিল না। ফলে বমি ও পেট ব্যথা করছিল।

রুনির পরিবারের সঙ্গে কথা বলে চিকিৎসকরা জানতে পারেন, তিনি মানসিক ভারসাম্যহীন। গত কয়েক বছর ধরে যেকোনো জিনিস খেয়ে ফেলার অভ্যাস তৈরি হয়েছিল তার। হাতে পেলেই সবকিছু খেয়ে ফেলতেন। এভাবেই একে একে এতো ধাতব জিনিস জমা হয় রুনির পেটে। বাড়ির সঙ্গেই তাদের একটি দোকান আছে। সেখান থেকেই তিনি বিভিন্ন কয়েন মুখে দিয়েছেন বলে পরিবারের সদস্যদের ধারণা।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, রুনির অবস্থা স্থিতিশীল। পরিবারের সদস্যদের রুনিকে মনোবিদের কাছে চিকিৎসা করানোর পরামর্শ দিয়েছেন হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

পূর্বকোণ/ময়মী

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 470 People

সম্পর্কিত পোস্ট