চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২২ অক্টোবর, ২০২১

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ | ১১:৩৮ পূর্বাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আফগানিস্তানে পরপর তিন বিস্ফোরণ, নিহত ২

পরপর ৩ বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে আফগানিস্তানের নানগারহার প্রদেশের রাজধানী জালালাবাদ। তালেবানদের লক্ষ্য করে ছোড়া শনিবারের এই বোমা হামলায় কমপক্ষে দু’জন নিহত হয়েছেন, আহত হন কমপক্ষে আরও ২০ জন। এএফপি

প্রদেশটির এক শীর্ষস্থানীয় কর্তা জানিয়েছেন, রাস্তার পাশেই বিস্ফোরণ হয়। হামলাকারীরা নিশানা করেছিল তালেবানদের গাড়ি। ধারণা করা হচ্ছে নিহতের দুজনই তালেবান কর্মকর্তা।

অন্য দিকে যারা আহত হয়েছেন তাদের অধিকাংশই সাধারণ নারী ও শিশু। তাৎক্ষণিকভাবে হামলার বিষয়ে আর কোনো সুনির্দিষ্ট তথ্য পাওয়া যায়নি। অন্য দিকে শনিবার কাবুলে একটি স্টিকি বোমা বিস্ফোরণ হয়। এতে দুজন আহত হয়েছেন। তবে বোমাটি কাকে বা কাদের লক্ষ্য করে ছোড়া হয়েছিল তা এখনো স্পষ্ট নয়।

তবে এটা স্পষ্ট যে, জালালাবাদের বিস্ফোরণে মূল লক্ষ্যই ছিল তালেবানরা। জালালাবাদের হামলার দায় স্বীকার করেনি কোনো পক্ষ। কাবুল থেকে মাত্র ৮০ কিলোমিটার দূরে জালালাবাদ। এটি আফগানিস্তানের একটি গুরুত্বপূর্ণ শহর। কিন্তু এই হামলায় আফগানিস্তানের নিরাপত্তা নিয়ে আবারও নতুন করে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

কাবুলে ড্রোন হামলায় ১০ মৃত্যুতে পেন্টাগনের দুঃখপ্রকাশ : আফগানিস্তান থেকে পুরোপুরি সেনা প্রত্যাহার করার কয়েক দিন আগে কাবুলে সংঘটিত ড্রোন হামলায় ১০ বেসামরিক নাগরিক নিহত হওয়ার ঘটনা স্বীকার করে দুঃখ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। ২৯ আগস্টের ওই ড্রোন হামলায় একজন সহায়তা কর্মী ও তার পরিবারের ৯ জন সদস্য মারা যান, যাদের মধ্যে সাতজন শিশু ছিল। নিহতদের মধ্যে পরিবারের সর্বকনিষ্ঠ সদস্য দুই বছর বয়সি সুমাইয়াও ছিল। এপি। শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট্রাল কমান্ডের জেনারেল কেনেথ ম্যাকেঞ্জি জানান, মারা যাওয়া সহায়তা কর্মীকে আইএসকের সদস্য ভেবে ভুল করেছিল মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা। জেনারেল ম্যাকেঞ্জি ওই হামলাকে ‘দুঃখজনক ভুল’ হিসাবে আখ্যায়িত করেছেন এবং মন্তব্য করেছেন যে তালেবান ওই হামলার পেছনে গোয়েন্দা সংস্থার সঙ্গে জড়িত ছিল না। ম্যাকেঞ্জি সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘হামলায় যাদের মৃত্যু হয়েছে তাদের পরিবারকে কিভাবে ক্ষতিপূরণ দেওয়া যায় সেই বিষয়ে আলোচনা করছে পেন্টাগন। অন্য দিকে আমেরিকার প্রতিরক্ষা সচিব লয়েড অস্টিন বলেন, ‘ড্রোন হামলায় যারা মারা গেছেন তাদের পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সহানুভূতি জানাই। আমরা ক্ষমাপ্রার্থী। এই ভুল থেকে ভবিষ্যতে আমরা শিক্ষা নেব।’ কিন্তু কেন এতবড় ভুল হলো আমেরিকার? সেই প্রসঙ্গে কেনেথ বলেন, ‘আমাদের কাছে খবর ছিল সাদা রঙের একটি গাড়িতে করে জঙ্গিরা যাচ্ছে। আমরা গাড়ির গতিবিধি লক্ষ্য করে হামলা চালাই। কিন্তু পরে তদন্ত করতে গিয়ে বুঝতে পারছি আমাদের কাছে ভুল খবর ছিল।’

জাতিসংঘ মহাসচিবকে তালেবানের চিঠি : জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের কাছে একটি চিঠি পাঠিয়েছে তালেবান। চিঠি পাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন গুতেরেসও। চিঠিতে আফগানিস্তানে অবস্থানরত জাতিসংঘের কর্মীদের সুরক্ষার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া আফগান নারীদের অধিকার সংক্রান্ত বিষয়গুলো সুরাহার কথাও বলা হয়েছে ওই চিঠিতে। তালেবানের কাছ থেকে চিঠি পাওয়ার এই কথা অ্যান্তোনিও গুতেরেস জানিয়েছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা স্পুটনিককে।

জাতিসংঘ মহাসচিব তালেবানের সঙ্গে আলোচনা নিয়ে আরও বলেছেন, ‘তালেবানের সঙ্গে এসব ইস্যুতে ইতিবাচক ও গঠনমূলক আলোচনা হয়েছে আমাদের।

ওই চিঠিতে এসব বিষয় নিয়ে বিভিন্ন ধরনের প্রতিশ্রুতিও দিয়েছে তালেবান কর্তৃপক্ষ।’ ‘তাদের (তালেবান) সঙ্গে মানবিক ত্রাণসহায়তা নিয়ে কথা হয়েছে।

পূর্বকোণ/এএইচ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 168 People

সম্পর্কিত পোস্ট