চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২২ অক্টোবর, ২০২১

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ | ১০:২৮ পূর্বাহ্ণ

আফগানিস্তানে সিরিজ বোমা বিস্ফোরণে নিহত ৭, আহত ৩০

আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলীয় শহর জালালাবাদ ও রাজধানী কাবুলে শনিবার পাঁচটি বোমা বিস্ফোরণে কমপক্ষে সাতজন নিহত এবং আরো ৩০ জন আহত হয়েছে। তালেবান সূত্র আল জাজিরাকে এই তথ্য জানিয়েছে। তালেবান এই হামলার জন্য আইএসকে দায়ী করেছে। তবে এখন পর্যন্ত কেউ হামলার দায়দায়িত্ব স্বীকার করেনি।
নানগারহার প্রদেশের রাজধানী জালালাবাদে শনিবার তালেবানের গাড়ি লক্ষ্য করে পরপর চারটি বোমা বিস্ফোরণের ঘটানো হয়। এতে নারী-শিশুসহ বহু হতাহতের ঘটনা ঘটে। নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক তালেবানের এক নেতা জানিয়েছেন এ তথ্য।
এদিকে, কাবুলে বোমা বিস্ফোরণে অন্তত দুই জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।
কোনো গোষ্ঠী এখনো হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে নানগারহারে জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) শক্ত অবস্থা রয়েছে বলে জানা গেছে। সন্দেহের তীর তাদের দিকেই।
তালেবানের এক সূত্র বলছে, জালালাবাদ ও কাবুলে হামলার পেছনে জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) খোরাসান শাখার হাত থাকতে পারে। হামলার পরপরই জালালাবাদ থেকে সন্দেহভাজন বেশ কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। তালেবানের ওই শীর্ষ নেতা বলেন, হামলার ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে এবং হামলাকারীদের অবশ্যই বিচারের আওতায় আনা হবে।
আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল গত ১৫ আগস্ট তালেবানের নিয়ন্ত্রণে যাওয়ার পর অস্থিতিশীল অবস্থা তৈরি হয় পুরো দেশে। লোকজন ভয় আর আতঙ্কে দেশ ছাড়তে কাবুল বিমানবন্দরে ভিড় করতে শুরু করেন। বিমানবন্দর এলাকায় বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির মধ্যে পড়ে ও গোলাগুলিতে অন্তত ৩০ জন প্রাণ হারান। গত ২৬ আগস্ট কাবুল বিমানবন্দরে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণে মারা যান আরও ১৭৫ জন। আহত হন দেড় শতাধিক মানুষ। পরে ওই হামলার দায় স্বীকার করে জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস-কে।
দিকে, সম্প্রতি তালেবানের কাছ থেকে একটি চিঠি পাওয়ার কথা জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। চিঠিতে আফগানিস্তানে দায়িত্বরত জাতিসংঘের কর্মীদের সুরক্ষার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তালেবান। এছাড়াও আফগানিস্তানের নারীদের অধিকার সংক্রান্ত বিষয়গুলো সুরাহার কথাও বলা হয়েছে ওই চিঠিতে।

 

 

পূর্বকোণ/এসি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 265 People

সম্পর্কিত পোস্ট