চট্টগ্রাম বুধবার, ০৪ আগস্ট, ২০২১

সর্বশেষ:

২২ জুন, ২০২১ | ১১:২৪ পূর্বাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বিশ্বে যুদ্ধক্ষেত্রে শিশু সৈনিক বাড়ছে, গতবছর মৃত্যু ২৭০০

বিশ্বে যোদ্ধা-আত্মঘাতী হামলাকারী হিসেবে বাড়ছে শিশুদের ব্যবহার। গতবছর বিশ্বজুড়ে সাড়ে আট হাজারের বেশি শিশুকে যুদ্ধক্ষেত্রে সৈনিক হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছিল। যাদের মধ্যে প্রাণ হারিয়েছে অন্তত দুই হাজার সাত’শ শিশু। আহত হয়েছে আরও পাঁচ হাজার ৭৪৮ জন।
সোমবার (২১ জুন) যুদ্ধ ও সংঘাতে শিশুদের ব্যবহার নিয়ে জাতিসংঘের বার্ষিক প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে আসে। আরও উঠে আসে, যুদ্ধে শিশুদের ব্যবহার ছাড়াও যৌন নির্যাতন, অপহরণ ও ত্রাণ পাওয়া থেকে বঞ্চিত হওয়ার বিষয়টি। হামলা চালানোর কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে শিশুদের। একই সঙ্গে হামলার লক্ষ্যবস্তুতেও রয়েছে শিশুরা। কারণ গত বছর বসতবাড়ি, স্কুল, খেলার মাঠ ছিল বেশিরভাগ হামলায় নিশানা এমনটি বলা হয় প্রতিবেদনে।
সারাবিশ্বে ১৯ হাজার ৩৭৯ শিশুর বিষয়ে খোঁজ নিয়ে এমন তথ্য প্রকাশ করে জাতিসংঘ। গত বছর সোমালিয়া,গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্র, আফগানিস্তান, সিরিয়া ও ইয়েমেনে বেশি নির্যাতনের শিকার হয়েছে শিশুরা।
অনেক শিশু জঙ্গিদের হাত থেকে মুক্তির পর নিরাপত্তা বাহিনী সদস্যদের হাতে ফের ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ছাড়া যুদ্ধের ফলে ত্রাণকর্মীরা পৌঁছাতে না পারায় দেখা দিয়েছে খাদ্য সংকট। যাতে বেশি ভুক্তভোগী শিশুরা। অনেকে আক্রান্ত হয়েছে অপুষ্টি ও নানান রোগে।
সহিংসতা থেকে বাঁচতে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে বহু রোহিঙ্গা। যাদের একটা বড় অংশই শিশু, যাদের বয়স ১৮ বছরের নীচে। প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বছর মিয়ানমার, সোমালিয়া ও সিরিয়ায় যুদ্ধক্ষেত্রে নিয়োগ করা হয়েছিল প্রায় সাত হাজার শিশুকে। সূত্র : এডিটিভি, আল জাজিরা

 

পূর্বকোণ/এসি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 184 People