চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১৮ মে, ২০২১

সর্বশেষ:

১৬ এপ্রিল, ২০২১ | ১০:১৩ অপরাহ্ণ

পূর্বকোণ ডেস্ক

ইতালিকে নকল মাস্ক দিয়েছিল চীন!

গত বছর বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনার সংক্রমণ ছড়ানোর শুরুর দিকে ইতালিতে এর প্রভাব ভয়াবহ আকার ধারণ করে। তখন বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় দেশটি শীর্ষে ছিল। প্রতিদিনই লাশের সারি, অবস্থা এমন দাঁড়ায় যে মরদেহ সৎকার করার জন্য পর্যাপ্ত জায়গা ও লোকবল দুটোরই সংকট দেখা দেয়। তখন বিপর্যয় মোকাবেলায় এগিয়ে আসে চীন। মাস্ক, গ্লাভস, ব্যক্তিগত সুরক্ষাসামগ্রী পিপিইসহ বিভিন্ন চিকিৎসা সরঞ্জাম পাঠানো হয় দেশটির পক্ষ থেকে।

ইতালিতে পাঠানো এসব চিকিৎসা সরঞ্জামের মধ্যে প্রায় ২৫০ মিলিয়ন মাস্ক ছিল। তবে পরে দেখা যায় এসবের প্রায় অর্ধেক নকল এবং ত্রুটিযুক্ত। তাই ২০২০ সালের জুলাইয়ের পর কোনো ধরনের কারণ দর্শানো ছাড়াই চীন থেকে মাস্ক আমদানি বন্ধ করে দেয় দেশটির সরকার। সূত্রের বরাত দিয়ে দ্য কুইন্টের এক গবেষণা প্রতিবেদনে এসব তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বছরের মার্চ মাস থেকেই ইতালিতে মাস্ক, পিপিইসহ কভিড-১৯ প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরঞ্জাম রপ্তানি করে চীন। মূলত চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য এগুলো আমদানি করে ইতালি সরকার। এ সহায়তার জন্য তখন বেইজিংয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছিল রোম। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে এসে বলা হচ্ছে, তখন চাইলে কিছু মানুষের মৃত্যু রোধ করা সম্ভব ছিল। যদি চীনা চিকিৎসা সরঞ্জাম ব্যবহার করা না হতো, তাহলেই এটা করা যেত। পাশাপাশি দেশটিতে করোনার ভয়াবহ সংক্রমণের জন্য এখন চীনকেই দোষারোপ করা হচ্ছে।

গরিজিয়ার প্রসিকিউটর দ্বারা সংগৃহীত প্রমাণ অনুসারে, ইতালির তৎকালীন সরকার কর্তৃক চীন থেকে আমদানীকৃত মাস্কের অর্ধেকই ত্রুটিযুক্ত। প্রতি দুটির মধ্যে একটি কার্যকর ছিল না। এগুলো ভাইরাস থেকে মানুষকে সুরক্ষা দিতে পারত না এবং ব্যবহারযোগ্যও নয়। তথ্যসূত্র : দ্য কুইন্ট।

পূর্বকোণ/ আরআর/পারভেজ

শেয়ার করুন
  • 48
    Shares
The Post Viewed By: 290 People

সম্পর্কিত পোস্ট