চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০৪ মার্চ, ২০২১

সর্বশেষ:

১৫ জানুয়ারি, ২০২১ | ১১:৩৯ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রবীণদের মধ্যে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া মারাত্মক

নরওয়েতে করোনার টিকা নিয়ে ২৩ জনের মৃত্যু

করোনাভাইরাসের টিকার প্রথম ডোজ নেওয়ার পর ২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে ইউরোপের দেশ নরওয়েতে। এতে অতিবৃদ্ধ ও মুমূর্ষু রোগীদের জন্য এ টিকাকে মারাত্মক ঝুঁকি হিসেবে অভিহিত করছে দেশটির স্বাস্থ্যবিষয়ক কর্তৃপক্ষ। ফলে এ ভাইরাসের টিকার সুরক্ষা ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে নতুন করে সংশয় দেখা দিয়েছে।

দেশটির স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, টিকার প্রথম ডোজ নেওয়ার পর যে ২৩ জন মারা গেছেন এর মধ্যে ১৩ জনের সুরতহাল প্রতিবেদনে দেখা যাচ্ছে, টিকা নেওয়ার পর প্রবীণদের জন্য টিকার সাধারণ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলোও মারাত্মক আকার ধারণ করেছে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গ শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) এমন খবর জানিয়ে লিখেছে, মহামারির অবসানে গোটা বিশ্বে দ্রুততার সঙ্গে করোনার টিকার অনুমোদন নিয়ে এখনও চলছে সমালোচনা। এর মধ্যেই ইউরোপের একটি দেশের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে টিকার সুরক্ষা নিয়ে এমন সতর্কবার্তা এলো।

নরওয়ের জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট জানিয়েছে, ‘মারাত্মকভাবে দুর্বল ও অসুস্থদের ক্ষেত্রে তুলনামূলক করোনার টিকার হালকা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও মারাত্মক পরিণতি ঘটাতে পারে। আর এমনটা হতে পারে যাদের বয়স অনেক বেশি তাদের ক্ষেত্রেও’। টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া মূল্যায়নে নরওয়ের জানানো এমন তথ্যকে বিশ্বজুড়ে শুরু হওয়া টিকাদান কর্মসূটির আগাম সতর্কবার্তা, বলছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

ইউরোপীয়ান মেডিসিনস এজেন্সির (ইএমএ) নতুন প্রধান ইমার কুক এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘একবার গণহারে টিকার প্রথম ডোজ দেওয়ার কাজটি হয়ে গেলে টিকাটির সুরক্ষার বিষয়টি নজরদারি করাটাই হবে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ’।

গত মাস থেকে নরওয়েতে করোনার ভ্যাকসিন মানবদেহে পুশ করা শুরু হয়। ইউরোপীয়ান মেডিসিন এজেন্সি অনুমোদিত ফাইজার-বায়োনটেকের টিকাটিই দেশটিতে করোনার প্রতিষেধক হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে।

নরওয়ে ইতিমধ্যে আনুমানিক ৩৩ হাজার মানুষকে টিকা দিয়েছে। মহামারি এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে সবচেয়ে ঝুঁকির মুখে পড়বেন এমন বিবেচনায় দেশটিতে সবার আগে প্রবীণ ও বয়োজ্যেষ্ঠদের টিকা দেওয়া হচ্ছে।

পূর্বকোণ/পি-আরপি

শেয়ার করুন
  • 126
    Shares
The Post Viewed By: 708 People

সম্পর্কিত পোস্ট