চট্টগ্রাম শনিবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০২১

১৩ জানুয়ারি, ২০২১ | ১১:২৬ পূর্বাহ্ণ

ট্রাম্পকে সরাতে রাজি নন ভাইস প্রেসিডেন্ট পেন্স

ডোনাল্ড ট্রাম্পকে প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরাবেন না বলে জানিয়েছেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। স্পিকার ন্যান্সি পেলোসিকে দেওয়া এক চিঠিতে পেন্স জানিয়েছেন, তিনি সংবিধানের ২৫তম সংশোধনী কার্যকর করে ট্রাম্পকে অপসারণ করবেন না। যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থে এমন পদক্ষেপ ভালো হবে না বলেও জানান তিনি। খবর গার্ডিয়ানের

এরআগে সংবিধানের ২৫তম সংশোধনী প্রয়োগ করে ট্রাম্পকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিতে মাইক পেন্সের প্রতি আহবান জানিয়েছিলেন ডেমোক্র্যাটদলের সদস্যরা।

মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট জানান, ট্রাম্পকে ক্ষমতা থেকে সরাতে ২৫তম সংশোধনী কার্যকর করবেন না। এটি ভয়ঙ্কর নজির তৈরি করবে।

এই চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পর পেলোসি দ্রুতই তার ব্যবস্থাপককে অভিশংসন বিতর্ক আয়োজনের নির্দেশ দেন। এর মধ্য দিয়ে মার্কিন ইতিহাসে কোনো প্রেসিডেন্টকে দ্বিতীয়বারের মতো অভিশংসনের মুখোমুখি হতে হচ্ছে। প্রতিনিধি পরিষদে বুধবার এই অভিশংসন বিতর্ক শুরু হওয়ার কথা।

স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি আইনপ্রণেতা জ্যামি রাসকিনের নেতৃত্বে ৯ আইনপ্রণেতাকে নিয়ে অভিশংসন কমিটি গঠন করেছেন। এসব আইনপ্রণেতা ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসনের জন্য যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করবেন।

ক্ষমতার বাকি মেয়াদে ট্রাম্পের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার জন্য রিপাবলিকানদের পক্ষ থেকেই কংগ্রেসে একটি প্রস্তাব উপস্থাপন করা হয়েছে। অভিশংসনের পরিবর্তে নিষেধাজ্ঞা আরোপ এক ধরনের হালকা ব্যবস্থা। পেনসিলভানিয়া থেকে নির্বাচিত রিপাবলিকান কংগ্রেসম্যান ব্রায়ান ফিটজপ্যাট্রিক এ প্রস্তাব তোলেন।

২০ জানুয়ারি নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেন শপথ নেবেন। ট্রাম্প ২০ জানুয়ারি দুপুরের পর থেকে আর প্রেসিডেন্ট পদেও নেই।

ক্ষমতায় নেই—এমন একজন প্রেসিডেন্টের অভিশংসন নিয়ে আইনপ্রণেতাদের কংগ্রেসে বিতর্ক করার কোনো নজির যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে নেই।

গত ৬ জানুয়ারিতে হোয়াইট হাউসের বাইরে সমাবেশে দেয়া বক্তৃতায় নভেম্বরের নির্বাচনে নিজেকে বিজয়ী দাবি করে সহিংসতা উসকে দেয়ার অভিযোগ আনা হচ্ছে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে।
তখন কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বিজয়কে স্বীকৃতি দেয়ার প্রক্রিয়া চলছিল।

এ সময় সমর্থকদের ক্যাপিটল ভবনের দিকে পদযাত্রা করতে নির্দেশ দেন ট্রাম্প। তাদের প্রতি তিনি ‘লড়াই’ করার আহবান জানিয়েছেন।
দাঙ্গাকারীরা ক্যাপিটল ভবনে হামলা চালিয়ে ভাংচুর, পুলিশের সঙ্গে লড়াই ও আইনপ্রণেতাদের আতঙ্কিত করে তোলে। এ সময় হাউসের অধিবেশন স্থগিত রাখতে বাধ্য হয়েছিলেন অধিবেশনের সভাপতি মাইক পেন্স।

তবে ক্যাপিটল হিলে হামলার পর স্থানীয় সময় গত সোমবার ট্রাম্পের সঙ্গে প্রথম সাক্ষাতে পেন্স সুর বদলে ফেলেছেন। ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত মেয়াদ শেষের দিনগুলোতে দু’জন একসঙ্গে কাজ করার বিষয়ে মতৈক্য হয়েছে তাদের মধ্যে। এ বিষয়ে হোয়াইট হাউসের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে সিএনএনকে বলেছেন, রিপাবলিকান সরকারের গত চার বছরের প্রশাসনিক কার্যাবলি ও সাফল্য নিয়ে তাদের মধ্যে চমৎকার আলোচনা হয়েছে। ক্ষমতার বাকি দিনগুলো দেশের কল্যাণে একযোগে কাজ করার বিষয়ে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছেন তারা।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 274 People

সম্পর্কিত পোস্ট